জেনে নিন আত্মনির্ভরশীল হওয়ার সহজ উপায়

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ মার্চ ২০১৯, ১০:০৭

জীবন চালাতে আয় জরুরি। তা চাকরি করে হোক বা ব্যবসা। তবে আমাদের দেশে যুবসমাজের জন্য পর্যাপ্ত চাকরির সুযোগ নেই। অনেকে বারবার চাকরির পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়ে হাল ছেড়ে দিচ্ছেন। কারো আবার অন্যের অধীনে, নিজের মতের বাইরে গিয়ে ৯টা-৫টার ডিউটিতে চরম অনীহাও আছে। আবার অনেকের নেই নতুন কোনো ব্যবসা শুরুর পর্যাপ্ত মূলধন।

তবে চোখ-কান খোলা রাখলে আপনিও অল্প সময় বা মূলধন দিয়ে শুরু করতে পারেন আয়। সেই আয় ছাড়িয়ে যেতে পারে বড় কোনো চাকরির বেতনকেও। স্বাস্থ্যবান করে তুলতে পারে আপনার পকেট।

সৃজনশীল দক্ষতা : সবার মধ্যেই কিছু না কিছু সৃজনশীল দিক থাকেই। কেউ ভালবাসেন কবিতা লিখতে, কেউ ভালোবাসেন ঘর সাজাতে, আবার কেউ ভালোবাসেন ফোটো তুলতে। নিজের ভিতরের সৃজনশীলতাকে অবহেলা না করে তাকে কাজে লাগান। কে বলতে পারে, হয়তো একজন ভালো ফোটোগ্রাফার বা কবি বা ইন্টেরিওর ডিজাইনার হয়েই জীবনে সাফল্য পেতে পারেন আপনি।

ফ্রিলান্সার লেখক : যদি আপনি লিখতে ভালোবাসেন তা হলে ফ্রিলান্সিংয়ে লেখালিখি করাও আপনার জন্য লাভদায়ক। এতে কোনও দায়বদ্ধতা নেই। বরং আছে সৃষ্টির মজা।

বাড়ি কেনা-বেচার মধ্যস্তকারী : বাড়ি বা জমির কেনাবেচা এই মুহূর্তে যথেষ্ট লাভজনক ব্যবসা। প্রথমে চেনাশোনার মধ্যে দিয়ে শুরু করুন। আস্তে আস্তে যোগাযোগের পরিধি বিস্তৃত হয়ে যাবে।

 

অনলাইনে চাকরি : বহু মানুষ আছেন যারা জীবনে ব্যস্ততার কারণে নিজেদের গবেষণার প্রজেক্ট লেখার সময় পান না। অনেক সময় তারা একজন অ্যাসিস্ট্যান্ট খোঁজেন। যদি ঘরে বসে টাকা রোজগার করতে চান তাহলে এই ধরনের বিভিন্ন সংস্থার সাইটে নিজের অ্যাকাউন্ট খুলুন আর টাকা আয় করুন ঘরে বসেই।

অনলাইন সার্ভে : নানা রকম পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য নানান সার্ভে পেপার অনলাইনে দেওয়া থাকে। সেখানে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য টাকা দেওয়া হবে আপনাকে।

মেকানিক্যাল : টিভি, ফ্রিজ, মোবাইল, মিক্সি, মাইক্রোওয়েভ থেকে শুরু করে যে কোনও মেশিন মেরামত করা শিখে নিন। এ ধরনের মেরামতির কাজও কিন্তু আজকের দিনে যথেষ্ট লাভদায়ক।

হোম ডেলিভারি : রান্না করতে ভালোবাসেন?  সহজেই করতে পারেন হোম ডেলিভারির ব্যবসা। এতে লাভ তো হবেই, পাশাপাশি হরেক রকম রান্নায় মনও ভালো থাকবে আপনার।

গৃহ শিক্ষকতা : টাকা রোজগারের এর থেকে সহজ পদ্ধতি আর কি হতে পারে? নিজের যোগ্যতা বুঝে এবং পছন্দের বিষয় বেছে নিয়ে সহজেই গৃহ শিক্ষকতা করতে পারেন।

গবেষণায় সাহায্য : যদি আপনি বিজ্ঞানের ছাত্র হন তা হলে এই ধরনের কাজ আপনার জন্য আদর্শ। এতে এক দিকে যেমন জ্ঞানের পরিধিও বৃদ্ধি পাবে, তেমনই পকেটও ভরবে।

পশুপালন : যদি আপনি পেট (গৃহপালিত পশু) লাভার হন তা হলে এ ধরনের কাজ আপনার জন্য আদর্শ। বাড়িতে বা অন্য কোথাও জায়গা ভাড়া নিয়ে শুরু করতেই পারেন পাখির খামার।  নিশ্চিত থাকেন মাসের শেষে পকেটে আসবে অনেক টাকা।

এবিএন/সাদিক/জসিস

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food