‘সরকার যেনতেন ভাবে খালেদার বিচার করতে চায়’

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ মে ২০১৯, ১৭:২৪

বেগম খালেদা জিয়ার মামলার বিচারে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ মে) সকালে গ্যাটকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির মধ্য দিয়ে এ আদালতের বিচার কাজ শুরু হয়। বেগম জিয়ার আইনজীবীর অভিযোগ, বেগম জিয়ার পেছন পেছন ছুটছে আদালত। এদিকে, দুদকের আইনজীবী বলছেন, আইনসম্মতভাবে স্থানান্তর করা হয়েছে আদালত।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতির তিন মামলাসহ ১৭ মামলার আদালত কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করে সোমবার গেজেট প্রকাশ করে আইন মন্ত্রণালয়। গ্যাটকো দুর্নীতি মামলার বিচার কাজের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার এ আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়। যদিও এ মামলার শুনানি ১৮ জুন পর্যন্ত মুলতবি করেছেন আদালত। এ দিন বেগম জিয়া ছাড়া অন্য আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

বেগম জিয়ার আইনজীবীর অভিযোগ, সরকারের প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই আদালত বসানো হয়েছে এখানে। আসামিপক্ষের আইনজীবী মাসুম আহমেদ তালুকদার বলেন, 'সরকার চাইছেন যেনতেন কায়দায় একটা বিচার করতে। এর পেছনে অনেক রাজনৈতিক উদ্দেশ্য আছে। সরকার তা একটার পর একটা বাস্তবায়নও করে যাচ্ছে।'

দুদকের আইনজীবী বলছেন, আইনসম্মত ভাবেই আদালতের স্থান পরিবর্তন করা হয়েছে। ১৬ মে বেগম জিয়াকে আদালতে হাজির করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আগামী ১৬ মে বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে বড়পুকুরিয়া এবং ১৯ মে এ আদালতেই নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ধার্য রয়েছে।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food