বন্দি নিখোঁজ : চট্টগ্রামের জেলার প্রত্যাহার, ২ কারারক্ষী বরখাস্ত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৭ মার্চ ২০২১, ১৫:০৫ | আপডেট : ০৭ মার্চ ২০২১, ১৫:১২

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে এক হাজতি ‘নিখোঁজের’ ঘটনায় জেলার ও ডেপুটি জেলারকে সরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি দুই কারারক্ষীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি একজনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করেছে কারা কর্তৃপক্ষ; ঘটনা খতিয়ে দেখতে গঠন করা হয়েছে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি।

কারা মহাপরির্দশক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মোমিনুর রহমান মামুন বলেন, চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার ও ডেপুটি জেলারকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে জেলার রফিকুল ইসলামকে কারা অধিদপ্তরে এবং ডেপুটি জেলার আবু সাদাতকে চট্টগ্রাম বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে।

এ ছাড়া মো. নাজিম উদ্দিন ও মো. ইউনুস নামে দুই কারারক্ষীকে সাময়িক বরখাস্ত করার পাশাপাশি কামাল হায়দার নামে এক কারারক্ষীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে।

হাজতি ‘নিখোঁজের’ বিষয়টি খতিয়ে দেখতে খুলনা বিভাগের কারা উপ-মহাপরিদর্শক ছগির মিয়াকে প্রধান করে করা তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে কারা মহাপরির্দশক মামুন জানিয়েছেন।

কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কারাগারের সুপার ইকবাল হোসেন ও বান্দরবান জেলা কারাগারের ডেপুটি জেলার ফোরকান ওয়াহিদ।

এক খুনের মামলায় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি ফরহাদ হোসেন রুবেল নামের এক আসামি শনিবার সকাল থেকে ‘নিখোঁজ’ জানিয়ে চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে কারা কর্তৃপক্ষ। পরে রাতে একটি মামলাও দায়ের করেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের কারাধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম।

মামলার এজাহারে বলা হয়, রুবেল কারাগারের কর্ণফুলী ভবনের পঞ্চম তলায় ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে ছিলেন। ভোর সোয়া ৫টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে তিনি ওয়ার্ড থেকে ‘বের হয়ে যান’।

মামলার বরাত দিয়ে ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, সদরঘাট থানার একটি হত্যা মামলায় গত ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে ছিলেন রুবেল।

চট্টগ্রামে গত ৬ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে এক ব্যক্তিকে বুকে ছুরি চালিয়ে হত্যার মামলায় ডবলমিুরিং থানার মিস্ত্রিপাড়া থেকে রুবেলকে গ্রেফতার করে সদরঘাট থানা পুলিশ।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ