ফাইভ জি এবং ফাইভ জি প্লাস প্রযুক্তি তৈরিতে হাত মেলাচ্ছে ভারত-জাপান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:১৯

ভারতে শতাধিক চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে চিনকে ভাতে মারার পরিকল্পনা করেছিল ভারত। এবার জাপানের সঙ্গে হাত মিলিয়ে প্রযুক্তিতে শি জিংপিনকে আরও কোণঠাসা করার বন্দোবস্ত করছে মোদি সরকার। ফাইভ জি এবং ফাইভ জি প্লাসের মতো উন্নত প্রযুক্তি তৈরিতে যৌথ উদ্যোগ নিচ্ছে ভারত ও জাপান। এর জন্য কোয়াড স্ট্র্যাটেজিস ডায়ালগ সদস্য- আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া ও ইজরায়েলের সাহায্য নেবে দুই দেশ।

জানা গেছে, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি তৈরির জন্য কোয়াড -এর বিদেশমন্ত্রীদের সঙ্গে আগামী মাসেই একটি বৈঠক হবে জাপানে। সেই বৈঠকেই ফাইভ জি ও ফাইভ জি প্লাস প্রযুক্তির প্রস্তাব দেবে ভারত ও জাপান। এখানেই শেষ হয়, প্রযুক্তি বিষয়ক ক্ষেত্রে (3GPP) চিনের প্রভাব কমাতে আরও কিছু পরিকল্পনা রয়েছে ভারতের। এতদিন বেশিরভাগ চিনা প্রযুক্তি কোম্পানিগুলিই দাপট দেখিয়েছে। সেই সংখ্যা হ্রাস করাও অন্যতম লক্ষ্য ভারত সরকারের।

শুক্রবারই জাপানের নয়া প্রধানমন্ত্রী ইওশিহিদে সুগার সঙ্গে কথা বলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখানেই স্ট্র্যাটেজিক ও গ্লোবাল পার্টনারশিপকে নয়া উচ্চতায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে হাত মেলান তারা। আসলে দুই দেশই বর্তমানে চিনা সেনার আগ্রাসনের মুখে। লাদাখে যেমন চোখ রাঙাচ্ছে ‘ড্রাগন’, তেমনই সেনকাকু দ্বীপেও শ্যেণ নজর তাদের। এমন পরিস্থিতিতে তাই ফের প্রযুক্তির দিক থেকে চিনকে ভোঁতা করে দিতে ছক কষছে এই দুই দেশ। আর এই পরিকল্পনাকে বাস্তবায়িত করতে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া ও ইজরায়েলকে পাশে চাইছেন মোদি-সুগা।
 
উল্লেখ্য, চিনের চিন্তা বাড়িয়ে ভারত-জাপান যৌথ নৌবাহিনী অনুশীলনের চতুর্থ সংস্করণ শুরু হয় শনিবার। ২০১২ সালে পারস্পরিক বোঝাপড়া আরও দৃঢ় করতে এবং ইন্দো-প্যাসিফিক এলাকায় শান্তি এবং স্থিতিশীলতা বহাল রাখার উদ্দেশ্যে নৌমহড়া শুরু হয়েছিল। শেষবার এই যৌথ মহড়া হয়েছিল ২০১৮ সালের অক্টোবরে। করোনা কালেই একটা সময় এই নৌমহড়ার উপর কালো মেঘ ঘনিয়ে এলেও শেষ পর্যন্ত দুই দেশের নৌ বাহিনীর অনুশীলন সময় মতোই অনুষ্ঠিত হল। এবার প্রযুক্তির মারে চিনকে জখম করার ঘুঁটি সাজাচ্ছে ভারত-জাপান।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ