যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ফের স্নায়ুযুদ্ধের আশঙ্কা চীনের

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৫ মে ২০২০, ১২:৪০

চীনের সঙ্গে চলমান সম্পর্ককে যুক্তরাষ্ট্র ‘নতুন স্নায়ুযুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে’ নিয়ে যাচ্ছে বলে সতর্ক করলেন চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী। করোনাভাইরাস নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ‘মিথ্যাচার’ প্রত্যাখ্যান করে তিনি বলেন, ভাইরাসের উৎস জানতে আন্তর্জাতিক তদন্তকে স্বাগত জানাবে বেইজিং।

করোনা মহামারি এবং হংকংয়ে বেইজিংয়ের নতুন নিরাপত্তা আইন নিয়ে ওয়াশিংটনের সঙ্গে কথার লড়াই দিনকে দিন খারাপ হচ্ছে। রোববার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ‘রাজনৈতিক ভাইরাস’ ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসের মূল কাজই হলো চীনকে দোষারোপ করে যাওয়া।

চীনের সপ্তাহব্যাপী বার্ষিক গণপরিষদ অধিবেশনে ওয়াং বলেছেন, ‘আমাদের একটা বিষয় মনোযোগ কেড়েছে, তা হলো যুক্তরাষ্ট্রে কিছু রাজনৈতিক শক্তি চীন-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ককে জিম্মি করেছে এবং আমাদের দুই দেশকে নতুন একটি স্নায়ুযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।’

বিশ্বের দুই পরাশক্তির তিক্ততা নতুন কিছু নয়। বাণিজ্য, মানবাধিকার ও আরো নানা ইস্যুতে দুই দেশের মধ্যে দীর্ঘদিনের বৈরিতা চোখে পড়ার মতো। তা আরো তীব্র আকার ধারণ করেছে করোনা মহামারির পর।

কোন রাজনৈতিক শক্তির কথা ওয়াং উল্লেখ করেছেন, তার স্বরূপ জানাননি ওয়াং। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শুরু থেকে করোনা মহামারি নিয়ে চীনের পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন। এ ভাইরাস ছড়ানোর জন্য চীনকে দায়ী করে গেছেন তিনি।

ওয়াশিংটনের এই দোষারোপ করাকে অনেকে ট্রাম্পের নিজ দেশের কোভিড-১৯ ব্যর্থতা ঢাকার চেষ্টা বলে মনে করছেন। ওয়াংও যুক্তরাষ্ট্রকে মহামারি মোকাবিলায় মনোনিবেশ করতে বললেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে বলতে চাই সময় নষ্ট করবেন না এবং মূল্যবান জীবনগুলোকে নষ্ট করা থামান।’

নোভেল করোনাভাইরাসের উৎস চিহ্নিত করতে আন্তর্জাতিক তদন্তকে চীন সবসময় স্বাগত জানাবে বললেন ওয়াং। তবে এই তদন্ত অবশ্যই ‘রাজনৈতিক হস্তক্ষেপমুক্ত’ থাকতে হবে দাবি জানালেন তিনি।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ