ভারতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২৫, ফের ঝড়ের পূর্বাভাস

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ মে ২০১৮, ১২:৩১

ঢাকা, ০৪ মে, এবিনিউজ : ভারতের রাজস্থান ও উত্তর প্রদেশে গত বুধবার রাতে বয়ে যাওয়া ধূলিঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২৫। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এদিকে, এই ঝড়ের তাণ্ডব থামতে না থামতেই ফের বড় ধরনের ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়েছেন দেশটির আবহাওয়াবিদরা।

বুধবার রাতের ওই প্রাকৃতিক দুর্যোগে ওই রাজ্য দুটির অনেক গ্রামে গাছ উপড়ে পড়েছে, বিদ্যুৎব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে, গবাদি পশু মারা গেছে ও ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

ভারতের বিমানবাহিনীর খেরিয়া ঘাঁটির আবহাওয়া বিভাগের তথ্যানুসারে, বুধবার রাত ৮টা ৪৫ মিনিট থেকে রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত উত্তর প্রদেশের আগ্রায় ৪৮.২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হযেছে। এ সময় ঘণ্টায় ১২৬ কিলোমিটার বেগে ঝড় বয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার উত্তর প্রদেশের ত্রাণ কমিশনার অফিসের মুখপাত্র সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানান, এই ধরনের ঝড়ে এই মৃতের সংখ্যা গত ২০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাজমহলের ভূমি আগ্রা। তা ছাড়া, উত্তর প্রদেশের পার্শ্ববর্তী রাজস্থানের তিনটি জেলা আলওয়ার, ভারতপুর ও ধোলপুরেও বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

বেশির ভাগ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে যখন বাসিন্দারা ঘুমাচ্ছিলেন তখন বজ্রপাত বা ঝোড়ো বাতাসে ভবন ধসে।

আগ্রার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাকেশ মালপানি জানিয়েছেন, ঝড়ে নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ৪ লাখ রুপি করে অর্থ সহায়তা দেওয়া হবে।

উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অদিত্যনাথ ব্যক্তিগতভাবে ত্রাণ ও চিকিৎসা সহায়তা কার্যক্রম পর্যবেক্ষণের জন্য কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রাকৃতিক দুর্যোগে হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করে এক টুইটার বার্তায় নিহতদের স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

এদিকে, ভারতের আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, আগামী কয়েক দিনের মধ্যে আরো বড় এলাকা জুড়ে বেশ কয়েকটি বড় ঝড় বয়ে যেতে পারে।

ত্রাণ কমিশনারের অফিস বলেছে, ‘লোকজনকে সাবধান থাকতে হবে।’ সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া, এনডিটিভি 

এবিএন/নির্মল/জসিম/এনকে

এই বিভাগের আরো সংবাদ