করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২৫৬

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৯:২৭ | আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৯:২৮

রহস্যময় করোনা ভাইরাসের কারণে চীন এখন ভয়াবহ পরিস্থিতির সম্মুখীন। মানুষের মাধ্যমে ছড়ানো এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন শতাধিক লোকের প্রাণহানি ঘটছে। কেবল তাই নয়, ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল চীনের সীমানা পেরিয়ে এর প্রাদুর্ভাব ইতোমধ্যে প্রায় ৩০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে মৃতের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২ হাজার ২৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে কেবল হুবেই প্রদেশেই মারা গেছেন ২ হাজার ১৪৪ জন।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা।

চীনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে হুবেই প্রদেশে আরও ১১৫ জন মারা গেছেন। তাছাড়া গোটা দেশে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন তিন লক্ষাধিক মানুষ।

চীনের বাইরে জাপানে তিনজন, হংকংয়ে দুইজন, ইরানে দুইজন, তাইওয়ানে একজন, ফিলিপাইনে একজন, ফ্রান্সে একজন ও দক্ষিণ কোরিয়ায় একজন করে লোক প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

চীন ও চীনের বাইরে সবমিলিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা এখন ২২৫৬ জনে পৌঁছেছে। আর সারা বিশ্বে এই ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা এর মধ্যে ৭৭ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

বর্তমানে থাইল্যান্ড, তাইওয়ান, জাপান, যুক্তরাজ্য, ইসরায়েল, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া ও ভারতসহ বেশকিছু দেশে অজ্ঞাত এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা গেছে। তাছাড়া আতঙ্কে রয়েছে পাকিস্তানও। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রেও এ ভাইরাসের তাণ্ডব শুরু হয়েছে।

এ দিকে সিঙ্গাপুরে এখন পর্যন্ত মোট পাঁচজন বাংলাদেশির করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তারা বর্তমানে দেশটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথমবারের মতো করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। এরপর চীনের বিভিন্ন শহরসহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে রহস্যময় এই ভাইরাস। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই ভাইরাসের কারণে বৈশ্বিক জরুরি স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করেছে।

গোটা বিশ্ব যখন মহামারি এই ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত, ঠিক তখনই যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণাগারে প্রাণঘাতী ভাইরাসটির প্রতিষেধক আবিষ্কারের দাবি করছেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা।

যুক্তরাষ্ট্রের সান দিয়েগো ল্যাবের গবেষকরা জানিয়েছেন, মাত্র তিন ঘণ্টার প্রচেষ্টায় তারা ভাইরাসটির পরীক্ষামূলক একটি ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছেন। যা করোনার বিরুদ্ধে খুব ভালো কাজ করবে। ইনোভিও ফার্মাসিউটিক্যালস এখন বিষয়টি নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে।

জানা গেছে, পরীক্ষামূলকভাবে ভ্যাকসিনটি প্রথমে কোনা প্রাণীর ওপর প্রয়োগ করা হবে। আর এরপর প্রয়োগ করা হবে মানবদেহে। প্রক্রিয়াটি পুরোপুরি সম্পন্ন করতে আরও কয়েক মাস সময় লাগতে পারে।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ