নির্বাচনের আগেই সাইবার হামলার শিকার ব্রিটিশ বিরোধী দল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:৪৮

যুক্তরাজ্যে আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আর মাত্র কয়েক সপ্তাহখানেক বাকি। এরই মধ্যে বড় ধরনের সাইবার হামলার কবলে পড়ল দেশটির প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টি। মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) দলটির এক মুখপাত্র দাবি করেছেন, লেবার পার্টির ডিজিটাল প্লাটফর্মকে লক্ষ্য করে এক বড় ধরনের সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। এতে বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে নির্বাচনি প্রচারণার গতি থমকে গেলেও তাদের কোনো গোপনীয় তথ্য লোপাট হয়নি।

যদিও দেশটির নিরাপত্তা সংস্থাগুলো নির্বাচনি প্রচারণা চলাকালে পরাশক্তি রাশিয়াসহ অন্যান্য দেশ থেকে চালানো সাইবার হামলার ঝুঁকির বিষয়ে অনেক আগেই সতর্ক করেছিল।

মঙ্গলবার লেবার পার্টির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, দলটির ডিজিটাল প্লাটফর্মকে লক্ষ্য করে সাইবার হামলাটি চালানো হয়। যার অভিযোগ এরই মধ্যে দেশটির জাতীয় সাইবার সিকিউরিটি সেন্টারের কাছে করা হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, হামলার পর নির্বাচনি প্রচারণার গতি খানিকটা ধীর হলেও পরে তা ঠিক হয়ে যায়। যদিও এর জন্য এখনই নির্দিষ্ট কাউকে দায়ী করা হচ্ছে না।

এবারের সাইবার হামলাকে ভীষণ গুরুতর আখ্যা দিয়ে দলটির প্রধান জেরেমি করবিন গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘সোমবারের (১১ নভেম্বর) এই হামলা শুরুর পরপরই আমাদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তা সফলভাবে প্রতিহত করতে সক্ষম হয়। যদিও এটি থেকে আসন্ন নির্বাচনে ঠিক কোন ধরনের সমস্যা আসতে পারে তার পরিষ্কার একটি ইঙ্গিত পাওয়া গেল।’

বিশ্লেষকদের মতে, বৈরী সম্পর্ক এবং দীর্ঘ অনিশ্চয়তার পর সম্প্রতি বিতর্কিত ব্রেক্সিট চুক্তির বিষয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের একটি সমঝোতা হয়েছিল। যদিও তা ব্রিটিশ পার্লামেন্ট থেকে অনুমোদন লাভে ব্যর্থ হয়।

যার প্রেক্ষিতে গত ২৮ অক্টোবর ইইউর পক্ষ থেকে ব্রেক্সিট কার্যকরের পূর্বনির্ধারিত সূচি ৩১ অক্টোবর থেকে ৩ মাস বৃদ্ধি করে আগামী বছরের ৩১ জানুয়ারি নির্ধারণ করা হয়।

এর আগে গত ২৯ অক্টোবর ব্রিটেনের আইনপ্রণেতারা দেশে আগাম নির্বাচন ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবে সায় দিলে আগামী ১২ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যে জাতীয় নির্বাচন আয়োজনের দিনক্ষণ নির্ধারিত হয়। ১৯২৩ সালের পর বছরের ডিসেম্বর মাসে এটিই হবে প্রথম কোনো সাধারণ নির্বাচন।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ