বেতন বৃদ্ধির দাবিতে কলকাতার সড়কে শিক্ষকদের বিক্ষোভ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:১৭

দীর্ঘদিনের আবেদন ও নিবেদনের পথ ছেড়ে এবার আন্দোলনে নেমে এলেন পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষকরা। রাজ্যের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষক ও অন্যান্য অভিজ্ঞ শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধির দাবিতে মিছিল নিয়ে সড়কে নেমে পড়েন 'ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইমারি ট্রেইনড টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন' (ডাব্লুবিপিটিটিএ) নামে প্রাথমিক শিক্ষকদের একটি সংগঠন।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় দুপুরে হাজরা ক্রসিং থেকে রাজ্যের প্রশিক্ষিত প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সমাবেশটি হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটে অবস্থিত মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবন পর্যন্ত পৌঁছালে পুলিশ এসে তাদের বাধা দেয়। এ সময় মিছিল থেকে অন্তত ১২ শিক্ষককে আটক করা হয়।

অভিযানে অংশ নেওয়া পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, 'সমাবেশকারীরা সকাল থেকেই হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটের দিকে অগ্রসর হচ্ছিলেন; পরবর্তীতে মিছিলটি আশুতোষ কলেজের সামনে এসে পৌঁছালেই তাদের নরমভাবে বাধা দেওয়া হয়। পরে শিক্ষকদের একাংশ উত্তেজিত শুরু হলে মিছিলে থাকা অন্তত ১২ জনকে প্রাথমিকভাবে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়। পরে যদিও তাদের ব্যক্তিগত বন্ডে সই গ্রহণের মাধ্যমে মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।'

এ দিকে সমাবেশে উপস্থিত প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠন 'ডাব্লুবিপিটিটিএ'র সভাপতি পিন্টু পাড়ুই বলেছিলেন, 'গত সোমবার সকালে সংগঠনের প্রায় শতাধিক সদস্য প্রধান শিক্ষক ও অন্যান্য প্রবীণ শিক্ষকদের গ্রেড বেতন বৃদ্ধির দাবিতে হাজরাতে সমবেত হন। আমাদের দাবি শিক্ষকদের বেতন ৩ হাজার ৯০০ থেকে বাড়িয়ে ৪ হাজার ১০০ রুপি করতে হবে।'

তিনি বলেন, 'গত শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে স্মারকলিপি দিয়ে সাক্ষাৎ করা সত্ত্বেও আমাদের দাবি পূরণে সরকারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো তৎপরতা নেওয়া হয়নি। মূলত এ কারণেই আমরা সড়কে বিক্ষোভ করতে নেমেছি।'

অপর দিকে শিক্ষামন্ত্রী অবশ্য বার্তা সংস্থা 'পিটিআই'কে বলেছিলেন, 'আমি ইতোমধ্যে তাদের সঙ্গে (ডাব্লুবিপিটিটিএ) সাক্ষাৎ করেছি; একই সঙ্গে প্রতিশ্রুতি দিয়েছি যে তাদের যে সকল দাবি বাস্তবায়নযোগ্য অবশ্যই তা পূরণ করা হবে। মূলত এরপরও তারা কেন এই সমাবেশটি করলেন তা আমার বুঝে আসছে না।'

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ