দিল্লির এইমস হাসপাতালে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৩৪ ইঞ্জিন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৮:১৬ | আপডেট : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২০:৩৯

ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড দিল্লির এইমসে। শনিবার বিকেল নাগাদ ভবনের দোতলা এবং তিনতলায় এমার্জেন্সি বিল্ডিংয়ে আচমকাই আগুন লেগে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রথমে ৬টি ইঞ্জিন আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে৷ আতঙ্কিত হয়ে পড়েন রোগী ও তাঁদের আত্মীয়রা। পরে ধীরে ধীরে ইঞ্জিনের সংখ্যা বেড়ে ২২টি ইঞ্জিন। দমকলের প্রাথমিক অনুমান, শর্ট সার্কিটের জেরেই আগুন লেগেছে।

আজ শনিবার বিকেলে এইমসের দোতলা এবং তিনতলা থেকে আচমকাই কালো ধোঁয়া বেরোতে দেখা যায়। সেটি আবার হাসপাতালের এমারজেন্সি বিভাগের ল্যাবরেটরি। রয়েছে অর্থোপেডিক বিভাগের অপারেশন থিয়েটারও। আতঙ্কিত হয়ে পড়েন রোগী ও তাঁদের আত্মীয়রা৷ হাসপাতালে চিৎকার, চেঁচামেচি শুরু হয়ে যায়। চিন্তিত হয়ে পড়েন চিকিৎসকরাও। তড়িঘড়ি রোগীদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। ঘটনার খবর পেয়ে এইমসে প্রথমে পৌঁছায় দমকলের ৬টি ইঞ্জিন। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নেভানোর কাজ শুরু হয়। কিন্তু পরিস্থিতি ক্রমশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে থাকলে, বাড়তে থাকে ইঞ্জিনের সংখ্যা। আধঘণ্টার মধ্যে ২২টি ইঞ্জিন গিয়ে কাজে নামে। কালো ধোঁয়ায় ঢাকা এইমস ভবন দেখে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পথচারীদের মধ্যেও।

গত ৯ আগস্ট থেকে এখানেই ভরতি রয়েছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। এইমসে অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়ামাত্রই উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠে বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব। জেটলি কেমন আছেন, তার খোঁজখবর নিতে শুরু করেন নেতারা। এই পরিস্থিতিতে জেটলির মতো হাইপ্রোফাইল রোগীর ঝুঁকি নিতে নারাজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও। তাই তাঁকে সুরক্ষিত রাখার সমস্ত ব্যবস্থা করা হয় তড়িঘড়ি। তবে জেটলি অন্য বিভাগে রয়েছেন বলে এইমস সূত্রে খবর।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ