ভারতে ভোট গণনা শুরু: প্রাথমিক ফলাফলে এগিয়ে বিজেপি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ মে ২০১৯, ১০:২২

ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হবে আজ বৃহস্পতিবার। এদিন, সকাল ৮টায় প্রার্থীদের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে শুরু হয় ভোট গণনা।

প্রাথমিক গণনা অনুযায়ী, উত্তর প্রদেশের বারাণসীতে পিছিয়ে আছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তবে কেরালার ওয়েনাডে এগিয়ে আছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। অপরদিকে, গুজরাটের গান্ধীনগরে এগিয়ে আছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলীতে এগিয়ে আছেন সোনিয়া গান্ধী, উত্তরপ্রদেশের ওমেঠিতে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী স্মৃতি ইরানী, পশ্চিমবঙ্গের হুগলিতে পিছিয়ে বিজেপি প্রার্থী লকেট এবং পশ্চিমবঙ্গের বসিরহাটে এগিয়ে আছেন তৃণমূলের তারকা প্রার্থী নুসরাত জাহান।

এনডিটিভির সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, বিজেপি ৬৬ টি আসনে এগিয়ে আছে। অপরদিকে কংগ্রেস ২০টিতে এগিয়ে আছে। পুরো প্রক্রিয়াই ভিডিও ক্যামেরার সামনে চলছে। প্রথমে গোনা হচ্ছে পোস্টাল ব্যালট। এর পরই পরেই ইভিএম গণনা শুরু হবে। প্রতিটি ইভিএম গণনা প্রক্রিয়ায় প্রায় আধঘণ্টার মতো সময় লাগেবে। ইভিএম গণনার পরেই ভিভিপ্যাট গণনা করা হবে। প্রথমবারের মতো ভিভিপ্যাট যন্ত্র ব্যবহারের কারণে ভোটের ফল ঘোষণা হতে কিছুটা দেরি হতে পারে বলে মনে করছে নির্বাচন কমিশন।

পশ্চিমবঙ্গের দৈনিক আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে ভোট গণনা শুরু হওয়ার পর বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট এগিয়ে আছে ১৯৩ আসনে। অন্যদিকে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট ৬৯ আসনে।

ভারতীয় পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভার ৫৪৩ আসনে ভোট হয়েছে। কোনো দলকে সরকার গঠন করতে হলে পেতে হবে ২৭২ আসন।

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের বুথফেরত সমীক্ষায় ক্ষমতাসীন বিজেপি জোটের জয়ের আভাস মিললেও বিরোধী জোট এটা মানতে পারছিল না।

আজ সকালে সারা দেশে একযোগে ভোট গণনা শুরু হয়। ভোট গণনা কেন্দ্র করে ভারতজুড়ে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে।

প্রত্যেক প্রার্থীর প্রতিনিধির উপস্থিতিতে সকাল ৮টায় স্ট্রংরুম খোলার পর পুরো প্রক্রিয়াটি ভিডিও ক্যামেরার সামনে করা হচ্ছে।

নির্বাচন কর্মকর্তারা মনে করছেন, সকাল ৮টা থেকে ভোট গণনা শুরু হলেও অনেক রাতে হয়তো ফল জানা যাবে। তবে প্রতি রাউন্ডের গণনা শেষে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ফল জানানো হবে।

ইভিএম নিয়ে সংশয় কাটাতে ভোট গণনার আগে ভিভিপ্যাট মেলানোর দাবি নির্বাচন কমিশন খারিজ করে দেয়ায় বড় ধরনের ধাক্কা খেয়েছে বিরোধী দলগুলো।

এমন পরিস্থিতিতে ভোট গণনার শেষ সময় পর্যন্ত ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

এদিকে ১৪টি বুথফেরত জরিপের মধ্যে ১২টিতেই জয়ের আভাসের পর বেশ ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন ক্ষমতাসীন দল বিজেপির শীর্ষ নেতারা।

এরই মধ্যে সরকার গঠনের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপিপ্রধান অমিত শাহ পরিকল্পনা উন্মোচন করেছেন।

ভারতের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ ১১ এপ্রিল শুরু হয়ে ১৯ মে শেষ হয়।

এর আগে ৯০ কোটি ভোটারের দেশ ভারতে বিশ্বের বৃহত্তম নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে গত ১৯ মে। গত ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে পর্যন্ত মোট সাতটি ধাপে ভোট গ্রহণ হয়েছে। ১ হাজার ৮৪১টি রাজনৈতিক দলের ৮ হাজারেরও বেশি প্রার্থী এ নির্বাচনে অংশ নেন। নারী প্রার্থীর সংখ্যা ৭২০ এবং তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী ৪ জন।

দেশটির নির্বাচন পদ্ধতি অনুযায়ী, ৫৪৩ আসনের লোকসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য কমপক্ষে ২৭২টি আসন প্রয়োজন।

প্রসঙ্গত, ১৯৫১-৫২ সালে ভারতের প্রথম লোকসভা নির্বাচন সম্পন্ন হতে সময় লাগে তিন মাস

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ