শ্রীলঙ্কায় সিরিজ হামলায় বিশ্ব নেতাদের নিন্দা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২২ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৩৯

শ্রীলঙ্কার রাজধানীর কলম্বোয় গির্জা ও অভিজাত হোটেলসহ আটটি স্পটে সিরিজ বোমা হামলায় এখন পর্যন্ত ২৯০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে, আহত হয়েছেন ৫ শতাধিক মানুষ। ওই ঘটনায় বিশ্বজুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বসহ সাধারণ মানুষের এই ঘটনা শোক প্রকাশ করেছেন। তারা এই ঘটনায় নিন্দা ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

ঘটনার পরপরই টুইটারে টুইট করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

টুইটে তিনি বলেন, ‘শ্রীলঙ্কার গির্জা ও হোটেলে সন্ত্রাসী হামলায় কমপক্ষে ১৩৮ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন প্রায় ৬০০ জন। ওই ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের পক্ষ থেকে আন্তরিক শোক প্রকাশ করছি। আমরা শ্রীলঙ্কাকে সহায়তা করতে প্রস্তুত।’

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে শ্রীলঙ্কার হামলাকে উদ্বেগজনক হিসেবে চিহ্নিত করেছেন।

টুইটে তিনি বলেন, ‘শ্রীলঙ্কায় গির্জায় ও হোটেলে এই সন্ত্রাসী হামলা উদ্বেগজনক। নিষ্ঠুর এই ঘটনায় যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের সবার প্রতি আমার গভীর সমবেদনা রয়েছে।’

মে আরও বলেন, ‘আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিশ্চিত করতে হবে, কাউকে যেন ভয় নিয়ে নিজের ধর্ম পালন করতে না হয়।’

নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট ঘটনার পরপরই এক টুইটবার্তায় বলেছেন, ‘ইস্টার সানডেতে গির্জা ও হোটেলে রক্তাক্ত হামলার ভয়াবহ খবর পাওয়া যাচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি ও তাদের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইল।’

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘শ্রীলঙ্কার সাধারণ মানুষদের প্রতি অস্ট্রেলিয়া সহমর্মিতা ও সমর্থন জানাচ্ছে। দারুণ প্রয়োজনের এই সময়ে আমাদের পক্ষে যা যা সহায়তা দেওয়া সম্ভব, আমরা সবটুকু দিতে প্রস্তুত।’

এ ছাড়া বর্বরোচিত এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছে কিছুদিন আগে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হওয়া নিউজিল্যান্ডও। প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন বলেছেন, ‘নিউজিল্যান্ড সব ধরনের সন্ত্রাসের প্রতি নিন্দা জানাচ্ছে। নিউজিল্যান্ডে গত ১৫ মার্চের হামলার পর আমাদের সবার ঐক্য আরও বেড়েছে। শ্রীলঙ্কায় গির্জায় অবস্থানরত মানুষদের ওপর হামলা হতে দেখাটা আমাদের জন্য বেদনাদায়ক। নিউজিল্যান্ড সব ধরনের উগ্রবাদকে পরিত্যাগ করছে। আমরা সবাইকে নিরাপদে প্রার্থনা করার স্বাধীনতা দিতে বদ্ধপরিকর। এমন সহিংসতার বিপক্ষে আমাদের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।’

 ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে নিজের টুইটারে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লিখেছেন, ‘আমাদের ধর্মে এ ধরনের বর্বরতার কোনো স্থান নেই। শ্রীলঙ্কার জনগণের পাশে থাকবে ভারত। নিহতদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের সঙ্গে আমি একাত্ম ও আহতদের দ্রুত আরোগ্যের জন্য প্রার্থনা করছি।’

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তার টুইটে বলেন, ‘ইস্টার সানডের দিনে এই হামলায় বহু অমূল্য প্রাণ ঝরে গেল ও শত শত মানুষ আহত হলেন। শ্রীলঙ্কায় আমাদের ভাইদের জন্য গভীর শোক প্রকাশ করছি। শ্রীলঙ্কার জনগণের শোকের সময় কাঁধে কাঁধ মেলাবে পাকিস্তান।’

নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলিও হামলার নিন্দা জানিয়ে নির্দোষ নিহতদের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ‘শ্রীলঙ্কায় একাধিক বোমা হামলায় নিরপরাধ মানুষের মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে শোকাচ্ছন্ন।’

এ ছাড়া ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, ব্রিটিশ বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ, মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসিসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও রাজনীতিকরা নিন্দা জানিয়েছেন।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ