ব্রেক্সিট নিয়ে ফের ভোট চান ব্রিটিশরা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৪ মার্চ ২০১৯, ১১:২০

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বিচ্ছেদ (ব্রেক্সিট) প্রসঙ্গে উদ্ভূত অচলাবস্থা নিরসনে দ্বিতীয় দফা গণভোটের দাবিতে মিছিল করেছে দেশটির লাখ লাখ মানুষ।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, গতকাল শনিবার যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের পার্ক লেইন থেকে শুরু করে পার্লামেন্ট স্কয়ার পর্যন্ত গণভোটের দাবিতে মিছিল করে মানুষ। পরে সেখানে এক সমাবেশও অনুষ্ঠিত হয়।

‘পুট ইট টু দ্য পিপল’ (জনগণের হাতে ছেড়ে দাও) নামে আয়োজিত এ সমাবেশে ১০ লাখেরও বেশি মানুষ সমবেত হয় বলে দাবি করেছে আয়োজকরা। ব্রেক্সিট বাতিলের দাবিতে অনেক প্রতিবাদকারী হাতে ইইউ পতাকা নিয়ে সমাবেশে হাজির হন।

ব্রেক্সিটের পূর্ব নির্ধারিত সময়সীমা এরই মধ্যে দুই সপ্তাহ পিছিয়ে দিতে সম্মত হয়েছে ইইউ। এরই পরিপ্রেক্ষিতে নতুন করে গণভোটের দাবি তুলেছে বিরোধী পক্ষরা।

সমাবেশে বক্তব্য দেন লিবারেল ডেমোক্র্যাট নেতা ভিন্স কেবল, লেবার পার্টির আরেক নেতা টম ওয়াটসন, স্কটল্যান্ডের প্রথম প্রধানমন্ত্রী নিকোলা স্টারজেন, লন্ডনের মেয়র সাদিক খান প্রমুখ।  

টম ওয়াটসন বলেন,  প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মের ব্রেক্সিট চুক্তি একটি যেনতেন রকমের চুক্তি। তাঁর কথা হলো- হয় ‘হ্যাঁ’ বলো, নয় ‘না’। আমি কেবলমাত্র তখনই ব্রেক্সিট চুক্তির পক্ষে ভোট দিতে পারি, যদি আপনি তার আগে জনগণকে সে ব্যাপারে ভোট দিতে দেন। আপনি এই ইস্যুতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছেন। দেশে একটা বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে। এবারে জনগণকে এর নিয়ন্ত্রণ নিতে দিন।

মেয়র সাদিক খান বলেন, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী ব্যর্থ হয়েছেন। এখন ব্রেক্সিটের বিষয়ে গণভোট আয়োজন ছাড়া কোনো পথ খোলা নেই। ব্রেক্সিটের সময় শেষ হয়ে গেছে,  নতুন করে চুক্তির বিষয়ে দেন-দরবার করার জন্য আর সময় অবশিষ্ট নেই। প্রধানমন্ত্রী বিভ্রান্তিকর তৎপরতার মাধ্যমে আমাদের ইউরোপীয় বন্ধুদের আস্থা নষ্ট করেছেন। সব পক্ষের স্বার্থ রক্ষা হয় এমন একটি চুক্তির বিষয়ে যারা সহায়তা করতে চেয়েছিলেন, তারাই এখন ব্রেক্সিট প্রক্রিয়ার ইতি চান।

এদিকে ব্রেক্সিট বাতিল চেয়ে রেকর্ডসংখ্যক স্বাক্ষর সম্বলিত অনলাইন পিটিশন জমা পড়েছে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ওয়েবসাইটে। আর্টিকেল ফিফটিন বদলানোর দাবি তোলা এই পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন ৪৩ লাখ মানুষ। প্রতিনিয়ত এতে স্বাক্ষরকারী মানুষের সংখ্যা বাড়ছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ