আজ আমাদের ইতিহাসের অন্ধকারতম দিন: নিউজিল্যান্ড প্রধানমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১৮:১৭

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় বন্দুকধারীর হামলায় তিন বাংলাদেশিসহ অন্তত ৪৯ জন নিহত হয়েছেন। হামলাকারী সন্দেহে এক নারীসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। একে সন্ত্রাসী হামলা আখ্যা দিয়ে নিউজিল্যান্ডে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা সতর্কতা জারি করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরডার্ন। এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) জুমার নামাজের সময় নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে হামলা চালায় এক বন্দুকধারী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাত্র ১০ মিনিটে তিনবার গুলি লোড করে অন্তত ২০ রাউন্ড গুলি চালিয়ে নিরাপত্তা বাহিনী আসার আগেই স্থান ত্যাগ করে হামলাকারী। এ সময় মসজিদে অন্তত ৩শ' জন মুসল্লি উপস্থিত ছিলেন। প্রাণ বাঁচাতে মসজিদের জানালা ভেঙে বাইরে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করেন অনেকে।

হামলায় আহত একজন বলেন, 'অনেক মুসল্লি ছিলেন সেখানে। বহু মানুষ হতাহত হয়েছেন। আমি পেছনের দরজা দিয়ে মসজিদে প্রবেশ করে পেছনের সারিতেই বসে ছিলাম। পেছন থেকে প্রথম গুলির শব্দ পাই। দ্বিতীয় গুলির শব্দ শোনার পরই আমি মসজিদের পেছনের দরজা দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে আসি।'

তিনি আরও বলেন, 'দেখলাম, নামাজ আদায়ের জন্য মানুষজন দ্রুতগতিতে মসজিদের দিকে যাচ্ছে। কিছুক্ষণ পরই গুলির শব্দ। জীবন বাঁচাতে প্রাণপণে দৌড়ে পালাচ্ছেন মানুষজন। এ এক ভয়াবহ পরিস্থিতি।'

আল নূর মসজিদ ছাড়াও লিনউডের একটি মসজিদের কাছেও বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছে। ক্রাইস্টচার্চ হাসপাতালের পাশের রাস্তায় থাকা একটি গাড়ী থেকে বোমা উদ্ধার করে নিরাপত্তা বাহিনী। হামলাকারীদের একজন অস্ট্রেলীয় নাগরিক বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। নিউজিল্যান্ডভিত্তিক গণমাধ্যম নিউজিল্যান্ড হ্যারল্ড বলছে, হামলাকারী তার ম্যানিফেস্টো প্রকাশ করেছে। এতে নিজেকে কট্টর ডানপন্থী এবং অভিবাসনবিরোধী হিসেবে উল্লেখ করেছে সে।

পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ বলেন, 'ইতোমধ্যে এক নারীসহ চারজনকে আটক করেছি আমরা। সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও তদন্ত কাজে ব্যবহার করছি। আশা করি অচিরেই আসল তথ্য উদঘাটন হবে। এটা দেশের স্মরণকালের ভয়াবহ হামলা।' 

এ দিনটিকে নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসের অন্ধকারতম দিন আখ্যা দিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বলেন, অভিবাসীদের পাশে আছে নিউজিল্যান্ড।

প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরডার্ন বলেন, 'আমি কি বলবো, নিউজিল্যান্ডের জন্য আজকের দিন কলঙ্কজনক।'

এরই মধ্যে পুরো ক্রাইস্টচার্চ নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে। সব বাসিন্দাদের বাড়ির ভেতরে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সব মসজিদ পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছে নিউজিল্যান্ড কর্তৃপক্ষ।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ