ভয়াবহ ঠাণ্ডা-তুষারঝড়, ৫০ বছরেও দেখেননি কেউ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:০৩

বিগত একমাস ধরে যুক্তরাষ্ট্রে তীব্র শৈতপ্রবাহ চলছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঠাণ্ডার তীব্রতা গত ৫০ বছরের রেকর্ড ভেঙেছে। বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দারা বলছেন, গত ৫০ বছরেও তারা এমন ঠাণ্ডা আর তুষারঝড় দেখেননি। যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলে বছরের শুরু থেকেই হাড় কাঁপানো শীত চলমান রয়েছে।

দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যম বলছে, আর্কটিক ও অ্যান্টার্কটিকা মহাদেশের মতো শীত পড়তে শুরু করেছে দেশটিতে। ঠাণ্ডা জমে যাচ্ছে নদী-নালা-সাগর। এদিকে শিকাগোসহ মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলে প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১ জনে। বৃহস্পতিবার দেশটির কোথাও কোথাও তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে মাইনাস ৫৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট।

অসহনীয় শীতের কারণে দেশটির পাঁচটি রাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, বেশ কয়েকটি জায়গায় তাপমাত্রা হিমাঙ্কের প্রায় ৬০ ডিগ্রির নিচে। এদিকে মিনেসোটার আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, হিমাঙ্কের চেয়ে ৭০ ডিগ্রি পর্যন্ত নিচে নামতে পারে এই স্টেটের তাপমাত্রা। ১৮০০ সালের পর চলতি বছরই এরকম ঠাণ্ডা পড়ল এই রাজ্যে।

এছাড়া ওয়াশিংটনে তাপমাত্রা হিমাঙ্কের প্রায় ৪ ডিগ্রি নিচে। শিকাগোতে মাইনাস ২৩ ডিগ্রি, ডেট্রয়েটেও তা হিমাঙ্কের প্রায় ২৮ ডিগ্রি নিচে। নিউইয়র্কে গড় তাপমাত্রা শূন্য ডিগ্রি। নায়াগ্রা, ওরলিয়ান্স কাউন্টি ও বাফালো, টরন্টোতে তাপমাত্রা প্রায় মাইনাস ১৪ ডিগ্রি।

ঠাণ্ডায় দেশজুড়ে বন্ধ রাখা হয়েছে প্রায় ২ হাজার ৭০০ বিমানের ফ্লাইট ও ট্রেন যাত্রা। তাপমাত্রা নেমে এসেছে প্রায় মাইনাস ১৩ ডিগ্রির আশপাশে। মার্কিন আবহাওয়া বিভাগ বলছে, আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এমন ভয়াবহ ঠাণ্ডা থাকবে।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ