ভারতীয় রাজনীতিতে নতুন চমক হয়ে এলেন প্রিয়াংকা গান্ধী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১৮:০৯

ভারতের পূর্ব উত্তরপ্রদেশের কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক পদে নিয়োগ পেয়েছেন প্রিয়াংকা গান্ধী ভদ্র। এই বড় পদ পাওয়ার মধ্য দিয়ে অবশেষে রাজীব-তনয়া সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশ করলেন। আসন্ন মে মাসের জাতীয় নির্বাচনের আগে দলের ক্ষমতা বাড়াতেই এ উদ্যোগ বলে মনে করা হচ্ছে।

বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কংগ্রেস জানায়, প্রিয়াংকাকে তার ভাই ও দলীয় প্রধান রাহুল গান্ধী এই গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগ দিয়েছেন।

বিভিন্ন নির্বাচনে কংগ্রেসের পরাজয়ের পর একাধিকবার প্রিয়াংকাকে সামনে নিয়ে আসার দাবি উঠেছিল দলের মধ্য থেকে। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ের অপেক্ষায় ছিলে কংগ্রেস হাইকমান্ড। অবশেষে এবার দলে প্রবেশ করলেন তিনি।

৪৭ বছর বয়সী প্রিয়াংকা গান্ধী ভদ্র এতদিন তার রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড ভাই রাহুল ও মা সোনিয়া গান্ধীর সমর্থনে তাদের রাজনৈতিক এলাকা আমেথি এবং রায়বাড়েলির মধ্যেই সীমিত রেখেছিলেন।

কিন্তু এবার নিজেই সক্রিয় হলেন প্রিয়াংকা। তাকে দলে এনে এবং উত্তরপ্রদেশের আংশিক দায়িত্ব দিয়ে ওই রাজ্যে নিজেদের সংগঠনের ধার বাড়াচ্ছে কংগ্রেস।

টুইটবার্তায় কংগ্রেস বলেছে, ‘আমরা উদ্যম নিয়ে এবার এগিয়ে যেতে প্রস্তুত।’

এছাড়া দলের হয়ে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব মধ্যপ্রদেশের উপ-মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া সামলাবেন বলে একই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

এ ঘোষণার পর রাহুল গান্ধী বলেন, তিনি তার বোনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে উত্তরপ্রদেশের এমন বড় একটি দায়িত্ব দিয়েছেন।

‘আমার কঠোর পরিশ্রমী বোন আমার সাথেই কাজ করবে। ব্যক্তিগতভাবে আমি খুবই খুশি এবং উদ্দীপ্ত। জ্যোতিরাদিত্যও একজন খুবই প্রগতিশীল নেতা,’ বলেন তিনি।

প্রিয়াংকা গান্ধী ভদ্রকে বহুদিন ধরেই কংগ্রেসের জন্য শক্তিশালী ট্রাম্পকার্ড মনে করা হয়ে আসছে। এই ট্রাম্পকার্ডই এখন কাজে লাগানো হচ্ছে উত্তরপ্রদেশের পূর্বাঞ্চলে। আর উত্তরপ্রদেশ এমন একটি রাজ্য, যেখানে যে দল জয় পাবে, কেন্দ্রের ক্ষমতা পেতে সে দলের সুবিধা হবে সবচেয়ে বেশি।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ