মিয়ানমার সেনাপ্রধানের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বাতিল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৮ আগস্ট ২০১৮, ১১:০৩

ঢাকা, ২৮ আগস্ট, এবিনিউজ : বানোয়াট তথ্য দিয়ে ঘৃণা ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ তৈরি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের সুস্পষ্ট প্রমাণ পাওয়ায় মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের অ্যাকাউন্ট ও অর্ধশতাধিক পেজ বন্ধ করে দিয়েছে ফেসবুক।

এমনকি মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর প্রধান মিন অং হ্লাইয়ের ফেসবুক অ্যাকাউন্টও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। 

সোমবার ফেসবুক নিউজ রুমে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানায় শীর্ষ সামাজিক মাধ্যমটি। 

এক বিবৃতির মাধ্যমে ফেসবুক সাইট জানায়, ‘বিশেষত, আমরা সেনাপ্রধান জেনারেল মিন হ্লাইং ও সেনাবাহিনী পরিচালিত মায়াবেদি টেলিভিশন নেটওয়ার্কসহ ২০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে মিয়ানমারের ফেসবুক ব্যবহার নিষিদ্ধ করছি। অতি সম্প্রতি জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের সুপইরশে মিয়ানমার তথ্য- অনুসন্ধান মিশনের আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা এসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে গুরুতর মানবাধিকার লংঘনের অপরাধের প্রামাণ্য খুঁজে পেয়েছেন।

ফেসবুক জানায়, ‘আমরা পুনরায় তাদেরকে জাতিগত ও ধর্মীয় উত্তেজনা উস্কে দেয়ায় আমাদের সেবা ব্যবহার প্রতিরোধে আমরা ফেসবুকের ছয়টি পাতা ও অ্যাকাউন্ট ফেসবুক থেকে সরিয়ে ফেলি। আমরা এসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত থাকা ইনস্টিগ্রাম থেকেও একটি অ্যাকাউন্ট বাতিল করেছি। এ ২০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার বাতিল করেছি।’

এতে বলা হয়, মিয়ানমারের জাতিগত সন্ত্রাস বাস্তবিকই ভয়াবহ। চলতি মাসের গোড়ায়, ফেসবুকে ভুল তথ্যের মাধ্যমে সহিংসতা ছড়ানো প্রতিরোধে পদক্ষেপ নেয়ায় ফেসবুক এক আপডেট শেয়ার করে।
আজ মিয়ানমার ফেসবুক আরও বেশি কার্যকর ব্যবস্থা নিয়েছে। ১৮টি ফেসবুক ও একটি ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট এবং ৫২টি ফেসবুক পাতা সড়িয়ে ফেলা হয়েছে। ১২ মিলিয়ন লোক এসব অ্যাকাউন্ট ও পাতা ফলো করত।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘আমরা এসব অ্যাকাউন্ট ও পাতাগুলোর ডাটা ও কন্টেন্ট সংরক্ষণ করে রেখে পাতাগুলো বতিল করেছি।’

এতে বলা হয়, আমরা মিয়ানমারে ফেসবুকের অপব্যবহার প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া অব্যাহত রাখব।
খবর বিবিসি

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ