ইতালিতে খৎনা করাতে গিয়ে দু'বছরের শিশুর মৃত্যু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:১৩

ইতালিতে অভিবাসীদের এক কেন্দ্রে একটি দু'বছরের শিশুর খৎনা করানোর সময় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হবার ফলে ছেলেটি মারা গেছে।

জানা গেছে, মৃত শিশুটির ভাইকেও একই সাথে খৎনা করানো হয়, তবে সে হাসপাতালে সেরে উঠছে। শিশু দু'টির নাম প্রকাশ করা হয় নি। ঘটনাটি ঘটেছে রোমের উত্তর-পশ্চিমে মন্টেরন্ডো উপশহরে।

তাদের মা নাইজেরিয়ান, এবং তিনি নিজে একজন ক্যাথলিক খৃস্টান হলেও নাইজেরিয়ার প্রচলিত ইসলামী রীতি অনুযায়ী সন্তানদের খৎনা করানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন।

ইতালির সংবাদ মাধ্যম বলছে, এ ব্যাপারে ৬৬ বছর বয়স্ক এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করা হয়েছে।

যে ডাক্তার ওই খৎনা করিয়েছিলেন, তিনি লিবিয়ান বংশোদ্ভূত আমেরিকান বলে জানানো হয়। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং পুলিশ এখন তার ডাক্তারি পড়াশোনা সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

তাদের মা নাইজেরিয়ান মহিলাটির নিজদেশে আরো পাঁচ সন্তান রয়েছে।

একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ইতালিতে প্রতি বছর পাঁচ হাজার খৎনা করানো হয় এবং তার এক তৃতীয়াংশেরও বেশি করানো হয় অবৈধভাবে। কিন্তু এ কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যুর ঘটনা খুব বিরল।

"এটা এমন এক শোকাবহ ঘটনা যা আমাদের স্তব্ধ করে দিয়েছে" - ফেসবুকে এক বার্তায় বলেছে আর্চি নামের একটি প্রতিষ্ঠান, যাদের পরিচালিত অভিবাসী কেন্দ্রে ওই ঘটনাটি ঘটে।

সারা ইউরোপ জুড়েই ছেলেদর খৎনা বৈধ, কিন্তু ইতালির সরকারি স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে খৎনা করানোর ব্যবস্থা নেই।

বেসরকারি ক্লিনিকে এটা করাতে গেলে ২ হাজার থেকে ৪ হাজার ইউরো পর্যন্ত খরচ হতে পারে। এ কারণে দরিদ্র পরিবারগুলো অনেক সময়ই অদক্ষ লোকদের দিয়ে এ কাজ করায় - যাতে ২০ থেকে ৫০ ইউরো খরচ হয়।

বিবিসির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মিশেল রবার্টস বলছেন, খৎনা করানো একটি সরল ডাক্তারি প্রক্রিয়া তবে এতে যে কোন ঝুঁকি নেই তা নয়।

কোন কোন ক্ষেত্রে ডাক্তাররা এটা করানোর পরামর্শ দেন। তা ছাড়া এটা করালে কিছু ক্ষেত্রে যৌনমিলনের মাধ্যমে এইচআইভি সংক্রমণের ঝুঁকি কমে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। সূত্র: বিবিসি । 

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ