‘আমাদের যাবতীয় পরিশ্রম একাই শেষ করে দিলেন রবি উইলিয়ামস’

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৫ জুন ২০১৮, ১২:৩৮

ওলেগ কোশেলেভ, ১৫ জুন, এবিনিউজ : অবশেষে স্বপ্নপূরণ। এই মুহূর্তটার জন্যই গত সাত বছর ধরে আমরা অপেক্ষা করে ছিলাম। 

বিশ্বকাপের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে সাজিয়ে তোলা হয়েছে রাশিয়াকে। বৃহস্পতিবার ছিল বিশ্বের সামনে নতুন রাশিয়াকে তুলে ধরার অগ্নিপরীক্ষা। বর্ণময় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমরা নিজেদের প্রমাণ করতে পেরেছি। কিন্তু আমাদের যাবতীয় পরিশ্রম একাই শেষ করে দিলেন রবি উইলিয়ামস। কুৎসিত অঙ্গভঙ্গি করে দুর্দান্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের তাল কেটে দিলেন ইংল্যান্ডের পপ ও রক স্টার। রবি উইলিয়ামস-কাণ্ডে রাশিয়ার বদনাম হয়েছে বলে মনে হয় না। বিশ্বের কাছে ব্রিটিশ গায়কই নিন্দিত হয়েছেন। 

বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব সরকারি ভাবে রাশিয়া পাওয়ার পরে প্রথম চিন্তা ছিল— সময়মতো সব কাজ সুষ্ঠু ভাবে শেষ করা সম্ভব হবে তো? কারণ, অনেকেরই সংশয় ছিল আমাদের পক্ষে সফল ভাবে বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজন করা সম্ভব কি না। তাই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বসে দুর্দান্ত অনুভূতি হচ্ছিল। রাশিয়ার নাগরিক হিসেবে গর্ব করার মতোই দিন। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বললেন, ‘‘১৮৮৭ সাল থেকেই রাশিয়ায় ভালবাসার আর এক নাম ফুটবল। আশা করছি, অংশগ্রহণকারী দেশের ফুটবলার ও সমর্থকেরা বিশ্বকাপ দুর্দান্ত ভাবেই উপভোগ করবেন। ফুটবল আমাদের এক সূত্রে বেঁধেছে।’’

চার বছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে অনেক বিতর্ক হয়েছিল। কারও মনে হয়েছিল, অকারণে অনুষ্ঠান দীর্ঘায়িত করা হয়েছিল। আমরা চেয়েছিলাম, ছোট্ট কিন্তু বর্ণময় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গোটা বিশ্বকে চমকে দিতে। রাশিয়ার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে তুলে ধরতে। হ্যাঁ, আমরা সফল ভাবেই তা করেছি। আমরা চেয়েছিলাম, ৩১টি দল রাশিয়ায় খেলতে এসে যেন কখনওই হতাশ হয়ে না পড়ে। এই কারণেই অভিনব পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। ছোট্ট একটা উদাহরণ দিলেই ব্যাপারটা স্পষ্ট হবে। ফ্রান্সের ফুটবলাররা রাশিয়ায় পা দিয়েই মুগ্ধ হয়েছেন হোটেলের ঘরের দেওয়ালে নিজেদের মুখের ছবি দেখে। পর্তুগালের ফুটবলারদের অবাক করে দেওয়ার জন্য অনুশীলন মাঠের চতুর্দিকে ফুটবলারদের শৈশবের ছবি লাগানো হয়েছে। ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেন বাগ‌্‌রুদ্ধ হয়ে গিয়েছিলেন রাশিয়ার বিখ্যাত সামোভার ও কোরোভাই (রাশিয়ার বিখ্যাত রুটি) উপহার পেয়ে। 

রবি উইলিয়াম শুধু অশ্লীল ভঙ্গিই করেননি, কথাও রাখেননি। ঠিক ছিল, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি গাইবেন ‘পার্টি লাইক রাশিয়া’। অথচ ব্রিটিশ গায়ক মাঠে নামলেন ‘লেট মি এন্টারটেন ইউ’ গাইতে গাইতে। কেন? রবি উইলিয়ামস দাবি করলেন, ‘‘আমি পার্টি লাইক রাশিয়া গাইতেই চেয়েছিলাম। কিন্তু আমাকে বারণ করা হয়েছিল।’’ মুহূর্তের মধ্যে বদলে ফেললেন বয়ান। এ বার তিনি বললেন, ‘‘পরে ঠিক করলাম, আমার সব চেয়ে জনপ্রিয় ও পরিচিত অ্যালবামের গানই গাইব।’’

তবে রবি উইলিয়ামস ‘পার্টি লাইক রাশিয়া’ উপেক্ষা করলেও পার্টি কিন্তু শুরু হয়ে গিয়েছে আমাদের দেশে। মস্কোর বিখ্যাত রেড স্কোয়ার থেকে দশ পা দূরেই গড়ে তোলা হয়েছে ফ্যান পার্ক। বিভিন্ন দেশের সমর্থকেরা দিনভর সেখানে উৎসবে মেতে রয়েছেন গত কয়েক দিন ধরেই। তার রেশই ছড়িয়ে পড়ল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লুঝনিকি স্টেডিয়ামে। উৎসব আরও রঙিন হয়ে উঠল পাখির ডানায় ভর করে রাশিয়ার বিখ্যাত গায়িকা এইদা গারিফুলিনার প্রবেশে। ব্রাজিলের কিংবদন্তি স্ট্রাইকার রোনাল্ডো পিছিয়ে ছিলেন না। ঠিক ছিল ২০১৮ বিশ্বকাপের ম্যাসকট জ়াবিভাকার সঙ্গে ফুটবল খেলবেন। রোনাল্ডো কিন্তু এগিয়ে দেন তাঁর হাত ধরে মাঠে নামা বছর পাঁচেকের খুদে ভক্তকে। 

খারাপ লাগছিল ইকের ক্যাসিয়াসকে দেখে। ২০১০ বিশ্বকাপজয়ী স্পেনের অধিনায়ক তিনি। এখনও সর্বোচ্চ স্তরে খেলছেন। অথচ এ বার তিনি বিশ্বকাপে নেই। লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের ট্রফি যখন হাতে নিলেন, বোঝা যাচ্ছিল খেলতে না পারার যন্ত্রণাটা চেষ্টা করেও লুকোতে পারছেন না। 

সেই দুঃখ ভুললাম সৌদি আরবের বিরুদ্ধে রাশিয়ার ৫-০ দুর্দান্ত জয় দেখে। রূপকথার শুরু। ম্যাচ শুরু হওয়ার এক মিনিট আগেও কেউ ভাবতে পারেনি রাশিয়া জিতবে। বর‌ং, এই বিশ্বকাপে রাশিয়াকে কেউ গুরুত্বই দেয়নি। আমিও  লিখেছিলাম, বিশ্বকাপের আয়োজনে রাশিয়া সবাইকে চমকে দেবে। কিন্তু হতাশ করবে আমাদের ফুটবল দল। এই প্রথম আমার পূর্বাভাস ভুল প্রমাণিত হওয়ায় দারুণ আনন্দ হচ্ছে। আশা করছি, এই বিশ্বকাপে রাশিয়া বার বার আমাদের ভুল প্রমাণিত করবে। 

লেখক: রাশিয়ার সংবাদ সংস্থা ‘তাস’-এর সাংবাদিক।  বিশ্বকাপ, ইউরো কাপ ও অলিম্পিক্স কভার করেছেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ