রিপাবলিক, টাইমস নাওয়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে মামলা দায়ের সালমান, শাহরুখ, আমিরদের

  হিন্দুস্তান টাইমস

১৩ অক্টোবর ২০২০, ১০:৩৯ | অনলাইন সংস্করণ

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে কাঠগড়ায় বলিউড। এবং রিয়া চক্রবর্তীর মাদকযোগের পর থেকে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসে বি-টাউনের নাম। নির্দিষ্ট কিছু সংবাদমাধ্যমে বলিউডকে আক্রমণ করে সংবাদ পরিবেশনের বিরুদ্ধে এবার কার্যত একজোট বলিউড। মুম্বইয়ের ৩৮টি ফিল্ম প্রযোজনা সংস্থা ও চলচ্চিত্র সংগঠন এবার দুটি সংবাদ চ্যানেল ও চার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকলেন আদালতে। হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির মানহানি করা হয়েছে সংবাদ পরিবেশনের নামে, এই অভিযোগ এনে আদালতের দ্বারস্থ শাহরুখ খান, সালমান খান, আমির খানরা। 

রিপাবলিক টিভি, টাইমস নাও এবং এই দুই চ্যানেলের চার কর্মী- অর্ণব গোস্বামী, প্রদীপ ভান্ডারি, রাহুল শিবশঙ্কর এবং নভিকা কুমারের বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলিউডে প্রথম সারির প্রযোজনা সংস্থাগুলির তরফে, যেখানে রয়েছেন শাহরুখ, সলমন, আমির, অক্ষয়, আদিত্য চোপড়া, ফারহান আখতার, করণ জোহরদের প্রযোজনা সংস্থার নাম। শুধু তাই নয়, এই পিটিশনে নাম রয়েছে চার চলচ্চিত্র সংক্রান্ত সংগঠনেরও। অভিযোগ জানিয়েছে দ্য ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন প্রোডিউসার্স গিল্ড অফ ইন্ডিয়া এবং সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্ট অ্যাশোশিয়েশন, ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড প্রোডিউসার্স কাউন্সিল এবং স্ক্রিন রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশন।

বলিউডের তরফে দায়ের করা এই যৌথ মামলায় চ্যানেল গুলিতে বলিউডের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা- ‘নোংরা’, ‘দূষিত’, মাদকাসক্ত, নোংরামিতে ভরপুর এই ধরণের শব্দ ব্যবহারে আপত্তি জানানো হয়েছে।

এক নজরে দেখে নিন কোন কোন প্রযোজক সংস্থার তরফে দায়ের করা হয়েছে এই মামলা- 

১.  আমির খান প্রোডাকশন

২.  অ্যাড-ল্যাব ফ্লিল্মস

৩.  অজয় দেবগণ ফিল্মস

৪.  আন্দোলন ফিল্মস

৫. অনিল কাপুর ফিল্ম অ্যান্ড কমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক

৬.  আরবাজ খান প্রোডাকশনস

৭.  আশুতোষ গোয়ারিকর প্রোডাকশনস

৮.  বিএসকে নেটওয়ার্ক অ্যান্ড এন্টারটেনমেন্ট

৯. Cape of Good Films (কেপ অফ গুড ফিল্মস)

১০. ক্লিন স্লেট ফিল্মস

১১. ধর্মা প্রোডাকশনস

১২, যশরাজ ফিল্মস

১৩. এমে এন্টারটেনমেন্ট অ্যান্ড মোশন পিকচার্স

১৪. এক্সেল এন্টারটেনমেন্ট

১৫. ফিল্ম ক্রাফট প্রোডাকশনস

১৬. হোপ প্রোডাকশন

১৭. কবীর খান ফিল্মস

১৮. লাভ ফিল্মস

১৯. ম্যাকগাফিন পিকচার্স

২০. নাদিয়াদওয়ালা গ্র্যান্ডসন এন্টারটেনমেন্ট

২১. ওয়ান ইন্ডিয়া স্টোরিজ

২২. আর এস এন্টারটেনমেন্ট

২৩. রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা পিকচার্স

২৪. রেড চিলিজ এন্টারটেনমেন্ট

২৫. রিল লাইফ প্রোডাকশনস

২৬. রিলায়েন্স বিগ এন্টারটেনমেন্ট

২৭. রোহিত শেট্টি পিকচার্স

২৮. রয় কাপুর ফিল্মস 

২৯. সলমন খান ফিল্মস 

৩০. শিখা এন্টারটেনমেন্ট

৩১. সোহেল খান প্রোডাকশনস

৩২. টাইগার বেবি ডিজিটাল

৩৩. বিনোদ চোপড়া ফিল্মস

৩৪. বিশাল ভরদ্বাজ পিকচার্স

তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মিডিয়া ট্রায়াল অবিলম্বে বন্ধ করা হোক আবেদনে দিল্লি হাইকোর্টকে জানিয়েছে তারা। মিডিয়া তারকাদের ব্যক্তিগত জীবনে যখন তখন ঢুকে পড়ে গোপনীয়তার অধিকার খর্ব করছে, যা অবিলম্বে বন্ধ হওয়ার দরকার, বলা হয়েছে আবেদনের কপিতে। আবেদনে আরও বলা হয়েছে, এই চ্যানেলগুলোর ‘এবং তার সদস্যদের বিরুদ্ধে দায়িত্বজ্ঞানহীন, অবমাননাকর, অপমানসূচক মন্তব্য বন্ধ করতে হবে এবং ক্ষমা চাইতে হবে'।

কিছু দিন আগেই ভুয়ো টিআরপি কাণ্ডেও বিতর্কে জড়িয়েছে রিপাবলিক টিভি। এই অভিযোগের ভিত্তিতে মুম্বাই পুলিশের সামনে হাজিরা দিতেও আসতে হয়েছে রিপাবলিক টিভির প্রতিনিধিকে। যদিও এই গোটা বিষয় নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে পালটা রিট পিটিশন দাখিল করেছে রিপাবলিক। এবার দুই সর্বভারতীয় চ্যানেলের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে আইনি পথে হাঁটল বলিউড।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ