করোনায় আটকে গেছে অর্ধশত চলচ্চিত্রের নির্মাণ ও মুক্তি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৩ জুলাই ২০২০, ১৬:৪১ | আপডেট : ০৩ জুলাই ২০২০, ১৬:৪৮

অনেক বছর ধরেই মন্দা যাচ্ছে দেশের সিনেমা শিল্পে। করোনার কারণে তা আরো থমকে গেছে। গেলো ২৮ জুন থেকে প্রায় আড়াই মাসের মতো বন্ধ রয়েছে বিনোদন জগতের সব ধরনের কার্যক্রম। এ অবস্থায় আটকে গেছে ৫০টির বেশি চলচ্চিত্রের নির্মাণ ও মুক্তি। দীর্ঘদিন কার্যক্রম বন্ধের কারণে ব্যাপক লোকসানের মুখে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন-বিএফডিসি। এই পরিস্থিতিতে চলচ্চিত্রে শিল্পে কয়েকশ' কোটি টাকা ক্ষতির আশঙ্কা করছেন নির্মাণ সংশ্লিষ্টরা।

প্রতি ইদে অন্তত ৬ থেকে ৭টি সিনেমার শ্যুটিং নিয়ে জমজমাট থাকে এফডিসি। করোনার কারণে এখন সবই বন্ধ। সিনেমা, বিজ্ঞাপন, টেলিভিশন বা নাটকের শুটিংয়ের জন্য ৯টি ফ্লোর ও বিভিন্ন যন্ত্র- ক্যামেরা, কালার গ্রেডিং মেশিন, লাইট, এডিটিং মেশিন ভাড়া বাবদ প্রতিমাসে কমপক্ষে ৬০ থেকে ৭০ লাখ টাকা আয় হতো এফডিসির। কিন্তু, গেলো দু'মাসে এসব থেকে কোনও টাকাই আসেনি। তবে, মার্চে এসব ভাড়া থেকে এফিডিসির আয় হয় ৪৯ লাখ ২০ হাজার টাকা।

বন্ধ রয়েছে বেশ কিছু সিনেমার কাজ। শ্যুটিং সেট প্রস্তুতির মধ্যেই আটকে আছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীভিত্তিক সিনেমা 'বঙ্গবন্ধু'। এছাড়া দীপঙ্কর দীপনের 'অপারেশন সুন্দরবন' নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলের 'গাঙচিল', 'জ্যাম'; রায়হান রাফীর 'স্বপ্নবাজী', 'ইত্তেফাক'; সৈকত নাসিরের 'ক্যাসিনো', 'আকবর'; সাইফ চন্দনের 'মন্ত্র', 'কাপ্তান'সহ বেশ কিছু সিনেমা। শ্যুটিং শুরু করতে না পারায় এরইমধ্যে ক্ষতি হয়েছে প্রায় কোটি টাকা।

বছরের দুই ঈদ ও বাংলা নববর্ষ চলচ্চিত্রের মৌসুম। কিন্তু এবার করোনার কারণে ধাক্কা খেয়েছে সবই। 'মিশন এক্সট্রিম' 'শান', 'বিদ্রোহী'র মতো বেশ কয়েকটি সিনেমা গত ইদে মুক্তির কথা থাকলেও, করোনার কারণে স্থগিত রয়েছে। এছাড়া মার্চে মুক্তির কথা থাকলেও স্থগিত রয়েছে 'নারীর শক্তি', 'ঊনপঞ্চাশ বাতাস', 'বান্ধব'সহ বেশ কয়েকটি সিনেমা।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে দুই ইদে কমপক্ষে ২০০ কোটি টাকা লোকসানের আশঙ্কা করছেন সিনেমা সংশ্লিষ্টরা।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ