আমিও স্বজনপোষণের শিকার: সাইফ আলি খান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৩ জুলাই ২০২০, ১৩:১৫

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে ‘স্বজনপোষণ’ বিতর্কে সরগরম বলিউড। আর এরই মাঝে সম্প্রতি একটি সেমিনারে সাইফ আলি খান বলেন, ‘আমিও স্বজনপোষণের শিকার’। আর সাইফের এই মন্তব্যের পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে ব্যাপক সমালোচনা।

বলিউডে স্বজনপোষণ প্রসঙ্গে কঙ্গনা যে মন্তব্য করেছেন, সে বিষয়ে সাইফ একেবারেই সহমত প্রকাশ করেননি। তার কথায়, কফি উইথ করণ নিয়ে কঙ্গনা কী বলেছে আমার ধারণা নেই। তবে যদি করণের বিষয় ওঠে বলব, ও কিন্তু নিজেকে নিজেই তৈরি করেছে, তবেই ও আজ এই জায়গায় গিয়েছে। এর জন্য ওকেও অনেক বাধা অতিক্রম করতে হয়েছে। সত্য সবসময় জটিল। এর মধ্যে আরও অনেক বিষয় রয়েছে। তবে লোকজন সে বিষয়ে আগ্রহী নয়। আমার মনে হয় জোয়ার শেষ হয়েছে, এবার ভালো জিনিস জ্বলে উঠবে।

স্বজনপোষণ বিতর্ক নিয়ে সইফ বলেন, দেশে যে বৈষম্য রয়েছে সেটা অবশ্য বিশ্লেষণ করা উচিত। স্বজনপোষণ, পক্ষপাতিত্ব, শিবির, এগুলি সবই বিভিন্ন বিষয়। আমি নিজেও স্বজনপোষণের শিকার হয়েছিলাম, কিন্তু তখন কেউ এই বিষয়টা নিয়ে কথাই বলেনি। তখন ফিল্ম ইনস্টিটিউট থেকে আসা ছেলেমেয়েরা পুরোভাগে থাকত, সেগুলি খুশি হয়েই দেখেছি। এই বৈষম্য নিয়ে যখন কথা হয়, যখন যোগ্যতার পক্ষে কথা হয়, তখন সেগুলি স্বাগত জানাই।

আর সইফের এই মন্তব্যের পরেই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাপক ট্রোলিংয়ের শিকার হতে হচ্ছে শর্মিলা পুত্রকে।

একজন টুইটার ব্যবহারকারী মন্তব্য করেন, সাইফের মা শর্মিলা ঠাকুর নিজেই অনেক বড় একজন অভিনেত্রী ছিলেন। আর বাবা মনসুর পতৌদি দেশের অন্যতম শীর্ষ ধনী ব্যক্তি ছিলেন তখন। এরপরও তিনি নাকি স্বজনপোষণের শিকার!

আরেকজন এক টুইটে বলেন, স্বজনপোষণে বেড়ে ওঠা ব্যক্তি নিজেকেই কী করে স্বজনপোষণের শিকার বলে দাবি করেন!

একজন টুইটারে মন্তব্য করেন, ‘স্বদেশ’ সিনেমার জন্য শাহরুখ খান জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাবেন বলে যখন সবাই একরকম নিশ্চিত ছিল, তখন বিস্ময়করভাবে ‘হাম তুম’ সিনেমার জন্য সাইফকে পুরস্কার দেওয়া হলো। সাইফ সত্যিই ‘নেপোটিজম’র শিকার!

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ