চলচ্চিত্রের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর দাবিতে সাড়া দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ মে ২০১৮, ১০:৫৬

ঢাকা, ১৭ মে, এবিনিউজ : চলচ্চিত্রের উন্নয়ন ইস্যুতে ঢাকাই সিনেমার অভিনেতা-অভিনেত্রীরা নিজেদের ক্ষুব্ধতা প্রকাশ করে আসছেন আগে থেকেই। দেশীয় সিনেমার তুলনায় বিদেশের সিনেমার বিস্তার করছেন, এমন অভিযোগে তথ্যমন্ত্রীর সমালোচনাও করেছেন অনেকে। শুধু তাই নয় চলচ্চিত্র উৎসবেও দুই ভাগে ভাগ হয়ে যেতে দেখা গেছে শিল্পীদের।


দেশের চলচ্চিত্রের মান উন্নয়ন না হওয়ায় কেউ কেউ আবার সরকারের সমালোচনাও করেছেন। কয়েকদিন আগে চলচ্চিত্রে নজর দেওয়ার জন্য ও প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানান চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। এরপর গতকাল চলচ্চিত্রের উন্নয়নে সরকারকে আরো আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান জনপ্রিয় অভিনেতা, নির্মাতা ও প্রযোজক সোহেল রানা।


অবশেষে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর সম্মিলিত দাবিতে সাড়া দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সবকিছুকে বিবেচনায় নিয়ে মন্দাবস্থা কাটাতে চলচ্চিত্রের উন্নয়নে মনোযোগী হচ্ছে সরকার।


সিনেমা হলের উন্নয়নে প্রাথমিকভাবে বরাদ্দ আসছে ৫০ কোটি টাকা। আগামী ৬ মাসের মধ্যেই অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে ডিজিটাল হবে ৭-১০টি সিনেমা হল। এ তালিকায় আছে অর্ধশতাধিক হল। ধীরে ধীরে সারাদেশের হলগুলোই ডিজিটালের আওতায় আসবে। বুধবার 'অফিসার রিটার্নস' সিনেমার মহরতে এ কথা জানান চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার।


তিনি আরো বলেন, ‘সবাই মিলে চেষ্টা করলে অনেক কিছুই সম্ভব। সেটা প্রমাণ হতে যাচ্ছে। আজকের সিনেমার যে দুরাবস্থা বিরাজমান, তার অন্যতম কারণ সিনেমা হলের নাজুক ও বেহাল দশা। আছে অব্যবস্থাপনাও।


তিনি আরও বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমরা চলচ্চিত্রের মানুষেরা কৃতজ্ঞ। তিনি আমাদের সমস্যা উপলব্ধি করেছেন এবং তার সমাধানে আন্তরিকভাবে এগিয়ে এসেছেন।


এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ