ভারতীয় সিরিয়াল বন্ধ, দর্শক দেখবে পুরনো এপিসোড

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২৩:৫৫

ঢাকা, ২০ আগস্ট, এবিনিউজ : দিনের পর দিন ওভারটাইম করে প্রাপ্য টাকা না পাওয়া। ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাজের পরও বেতন নিয়ে জটিলতা৷ এই ধরণের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে প্রযোজকদের সঙ্গে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের বিবাদ বেশ কিছুদিন ধরেই চলছে৷ দিন কতক আগেও টেকনিশিয়ানদের সঙ্গেও প্রযোজকদের সমস্যা হয়েছিল৷ এবার সেলেব্রিটিদের সঙ্গেও একই জটিলতা বাধল প্রযোজকদের৷

শনিবার টেকনিশিয়ান স্টুডিওতে এই নিয়েই হয়েছিল মিটিং৷ যদিও কোনও সিদ্ধান্তে আসতে পারেননি তারা৷ পরে আরও বৈঠক হবে বলেও জানিয়েছিলেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর সোমবার দুপুর থেকেই এসভিএফ এর টিম সকলকে নিয়ে মিটিং এ বসবেন বলে জানা গিয়েছে। বিকেল চারটে নাগাদ আর্টিস্ট ফোরামের একটি মিটিং হবে বলেও জানা গিয়েছে। তবে কোন সুরাহা হবে কিনা তা জানা যাবে এই মিটিং এর পরই।

সূত্রের খবর , সোমবার বন্ধ থাকবে সিরিয়ালের সম্প্রচার৷ দর্শকের কথা মাথায় রেখে এই সব সিরিয়ালের পুরনো এপিসড রিপিট করা হবে। প্রত্যেকটি চ্যানেলেই আপাতত বন্ধ থাকছে বিভিন্ন সিরিয়াল। অভিনেতা-অভিনেত্রীরা যথা সময়ে আসবেন মেকআপ করবেন কিন্তু শুটিং করবেন না। যতক্ষণ পর্যন্ত না তারা প্রাপ্য টাকা পাচ্ছেন।

আর্টিস্ট ফোরামের সমস্যা গুলো জানিয়েছেন বেশ কিছু অভিনেতা-অভিনেত্রী৷‘ভানুমতির খেল’ ধারাবাহিকের নতুন চরিত্রে এন্ট্রি নিয়েছেন দীর্ঘই৷ তিনি জানান, তার শ্যুটিং ক্যানসেল হয়ে গেছে৷

দীর্ঘইর কথায়, আমরা তো পেমেন্টটা পেয়ে গেছি৷ আমাদের হাউজ টাকা দিয়েছে৷ আর যারা টাকা পায়নি তাদের জন্য সত্যি খারাপ লাগছে৷ কারণ দু-তিনজনের জন্য আমাদের মতো হাউজ যারা টাকা ঠিক ঠাক দিচ্ছে তাদের নাম খারাপ হচ্ছে৷ নিয়ম চালু হওয়ার পর থেকে আমাদের ১৪ ঘণ্টাই কাজ করানো হচ্ছে৷ আর আমি তো ১৫ দিনের কন্ট্র্যাক্টে রয়েছি তো আমার ১০ ঘণ্টার বেশি টাকা দেওয়ার কথাই ছিল না।

একই ধারাবাহিকের মুখ্য অভিনেতা রুবেল জানান, মেগাসিরিয়ালের একটা সমস্যা তো জানোই যে ব্যাঙ্কিংয়ের একটা চাপ থাকে৷ পারিশ্রমিকটাই তো আসল, সেটার জন্যই আমরা কাজ করছি৷ অনেকেরই পেমেন্ট ক্লিয়ার হয়নি৷ সেটা ঠিক নয় একেবারেই৷ আমরা খেটে যাচ্ছি, মূল্যবান সময় দিয়ে সে কাজ করছি কিন্তু টাকা পাব না? তাই আর্টিস্টদের দাবি মেনে নেওয়া উচিত৷ আমি যদিও কখনও এরকম সমস্যায় পড়িনি৷ তবে যারা প্রতিবাদ করেছেন তাদের আমি সমর্থন করি৷ ফেম, পপুউল্যারিটির পর টাকাটাও গুরুত্বপূর্ণ।

‘জয়ী’ ধারাবাহিকের অভিনেত্রী দেবাদ্রিতা এই সমস্যার সম্মুখীন হননি৷ তিনি বলেন, আমার ধারাবাহিকের আর কারও সঙ্গে কিছু হয়েছে কিনা বলতে পারব না৷ ওভারটাইম আমায় করতে হয়নি৷ ১০টার পর সাধারণত শ্যুটিং হয় না৷ হলেও সেটা নিয়ম মেনেই হয়৷

অভিনেত্রী মিমি দত্ত জানিয়েছেন, সমস্যাটা হল বহুদিন ধরেই চলছে৷ ঠিক সময় মত চেক পেতাম না৷ ঠিক মতন পারিশ্রমিক আসতো না৷ সেই কারণে নানা সমস্যার সম্মুখীন হয়েছি৷ ১৭-১৯ ঘণ্টা, ২৪ ঘণ্টা, ৪৮ ঘণ্টাও কাজ করেছি৷ কিন্তু তার জন্য কোনও অতিরিক্ত পারিশ্রমিক আমরা পাইনি৷ কোনও সমাধানই হচ্ছিল না৷ ফাইনালি আমরা একটা সিদ্ধান্তে এসেছিলাম যে বিষয়টা নিয়ে কথা বলব৷ শুধুমাত্র আর্টিস্ট ফোরাম থেকে নয়, প্রডিউসার গিল্ড থেকেও স্যাংশন করা হয়েছে৷ প্রত্যেক মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে যেন আমরা টাকা পেয়ে যাই৷ সময়মত টাকা না এলে অনেকের অনেক কিছু আটকে যায়৷ সংসার চলে না৷ তাই জুন মাস থেকে ওভারটাইমের টাকাও দেওয়ার কথা ছিল৷ বহু প্রযোজকরাই সেটা দেননি৷ কোনটাই নিয়মমাফিক হচ্ছে না৷

ওভারটাইমের সম্বন্ধে মিমি খোলসা করে জানান, ১০ ঘণ্টা আমাদের কাজ করার কথা৷ খুব বেশি হলে ১৪ ঘণ্টা৷ তার বেশি কারও কাজ করার কথা না৷ পার ডে ওয়াইজ যিনি যত টাকা পান সেই মতই দশ ঘণ্টার পর চার ঘণ্টা কাজ করলে দেওয়ার কথা৷ আর শুধুমাত্র আর্টিস্টদের নয় টেকনিশিয়ানদেরও ওভারটাইম হয়৷ আমরাও তো কর্মী৷ বিনোদনের জগত হলেও এটাই আমাদের উপার্জনের জায়গা৷ তাহলে সবকিবছু নিয়মের মধ্যে থাকবে না কেন৷ প্রযোজকরা যখন সই করেছিলেন তার মানে তারা মেনে নিয়েছিলেন প্রতিটি নিয়ম৷ তাহলে সেগুলো মানা হবে না কেন৷ তাই আমরা এক হয়ে প্রতিবাদ করছি৷

অভিনেত্রী সায়ন্তনী গুহা ঠাকুরতা জানান, এই প্রবলেমটা দীর্ঘদিন ধরে চলছে৷ এবার একটা সিদ্ধান্তে আসা উচিত৷ প্রত্যেক সেলেব্রিটির একটা ব্যক্তিগত জীবন আছে৷ এই ওভারটাইমের জন্য তাদের ব্যক্তিগত জীবন এবং অন্যান্য বহু কাজে সমস্যা হচ্ছে৷ যে পরিমাণে ওভারটাইম করানো হয়, সেই পরিমাণ পারিশ্রমিক পাওয়া যায় না৷ কিছু হাউজ টাকা দিলেও অন্যান্য হাউজ দেয় না৷ সব প্রফেশনে একটা নির্দিষ্ট সময় আছে৷ সেটা এই প্রফেশনেও হওয়া দরকার৷

‘আমলকি’ ধারাবাহিকের অভিনেত্রী অন্তরার কথায়, সবাই তো সাধারণ মানুষ৷ চাকরি করে, প্রতি মাসে টাকা পায়৷ কিন্তু আমরা সেটা পাইনা৷ জুলাই মাসের টাকা অনেকেই পায়নি৷ এমন অনেক প্রযোজনা সংস্থা আছে যারা জুলাই মাসের টাকা দেয়নি৷ তার জন্যই আমরা শ্যুটিং বন্ধ রেখে প্রতিবাদ করছি৷

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ