সিরামিক পণ্য রফতানিতে সরকার সহায়তা বাড়াবে : বাণিজ্যমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:১৫

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, সরকার সিরামিক পণ্য রফতানিতে সহায়তা আরও বাড়াবে। বাংলাদেশের সিরামিক পণ্য ইতোমধ্যেই বিশ^বাজারে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছে। উন্নত বিশে^ বাংলাদেশের তৈরি সিরামিকের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে বাংলাদেশ সিরামিক ম্যান্যুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ‘সিরামিক এক্সপো ২০১৯-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ সিরামিক ম্যান্যুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লার সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম এবং অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ইরফান উদ্দিন বক্তৃতা করেন।

টিপু মুনশি বলেন, বাংলাদেশের সিরামিকের গুণগতমান ও নির্মাণশৈলী ব্যবহারকারীদের আকর্ষণ করছে। সরকার তৈরি পোশাকের পাশাপাশি যে সকল পণ্য রফতানিতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে, তার মধ্যে অন্যতম সিরামিক পণ্য।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সিরামিক পণ্য তৈরির জন্য কাঁচামাল ছাড়া অত্যাধুনিক পরিবেশ বান্ধব ফ্যাক্টরি, গ্যাস-বিদ্যুৎ এবং সহজলভ্য দক্ষ শ্রমিক আমাদের আছে। বিশে^র যে কোনো দেশের সাথে প্রতিযোগিতা করে বাজারে টিকে থাকার সক্ষমতাও বাংলাদেশের আছে। সিরামিক শিল্পকে আরও লাভজনক ও রফতানিমুখী করতে সরকার সব ধরনের সহযোগিতা প্রদান করে যাচ্ছে। যেসব ক্ষেত্রে সমস্যা রয়েছে, তা চিহ্নিত করে সমাধান করা হবে।’

টিপু মুনশি বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক নানা প্রতিকূল পরিবেশ মোকাবেলা করে আজ বর্তমান অবস্থানে এসেছে। তৈরি পোশাক রফতানিতে বাংলাদেশের অবস্থান এখন দ্বিতীয়। বাংলাদেশে সিরামিক শিল্পেরও প্রসার ঘটছে দ্রুত। আন্তরিকতার সাথে কাজ করে এ শিল্পকে এগিয়ে নিতে হবে।

এ শিল্প আমাদের ঐতিহ্য ধারণ করে এগিয়ে যাচ্ছে এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সামনে উজ্জল ভবিষ্যৎ, এ সুযোগ আমরা কাজে লাগাতে চাই। আমাদের ঘরে ঘরে সিরামিকের ব্যবহার বাড়ছে। দেশেই উৎপাদনের কারণে তুলনামূলক কমদামে মানুষ সিরামিক সামগ্রী ব্যবহার করতে পারছেন।’

উল্লেখ্য, এবার ২০টি দেশের ১২০টি প্রতিষ্ঠান প্রায় ১৫০টি ব্র্যান্ড নিয়ে এক্সপোতে অংশ নিয়েছে। 
খবর বাসস

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ