আয়কর মেলায় রাজস্ব আদায় ৩ হাজার কোটি টাকা ছাড়াবে : এনবিআর

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ নভেম্বর ২০১৯, ১৯:০১

আসন্ন আয়কর মেলায় রাজস্ব আদায় ৩ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। একই সঙ্গে নতুন ৪ লাখ করদাতাকে সেবা দেয়ার ব‌্যাপারে আশাবাদী প্রতিষ্ঠানটি।

মঙ্গলবার রাজধানীর সেগুনবা‌গিচায় সংবাদ স‌ম্মেল‌নে এ তথ্য জানান এন‌বিআরের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। এ সময় এন‌বিআরের সদস্য (কর প্রশাসন) কালিপদ হালদারসহ মেলা ক‌মি‌টির সদস্যরা উপ‌স্থিত ছি‌লেন।

এনবিআরের চেয়ারম্যান বলেন, আয়কর মেলা ইতোমধ্যেই করদাতাদের বার্ষিক মিলনমেলা হিসেবে পরিচিত পেয়েছে। ৯ বছর ধরে মেলায় অভূতপূর্ব সাড়া পাওয়া গেছে। মেলায় রিটার্ন দাখিল করতে পারবেন করদাতারা। আয়কর দেয়া যাবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত।

তিনি বলেন, এ অর্থবছরে ৩০ লাখ মানুষ রিটার্ন দাখিল করবেন বলে আশা করছি। যদিও আমাদের লক্ষ্য থাকবে ৪ কোটি করদাতা। আমরা আশা করছি, একসময় রাজস্বের ৪০ শতাংশ আসবে আয়কর থেকে।

‘সবাই মিলে দেব কর, দেশ হবে স্বনির্ভর’ এ স্লোগানে আগামী ১৪ নভেম্বর দেশব্যাপী শুরু হবে আয়কর মেলা। চলবে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত। রাজধানীসহ সব বিভাগীয় শহরে সাত দিন, জেলা শহরগুলোতে চার দিন, ৪৮ উপজেলায় দুই দিন এবং আট উপজেলায় দিনব্যাপী আয়কর মেলা করবে এনবিআর। সব মি‌লি‌য়ে এবার দেশের ১২০টি স্থানে হবে আয়কর মেলা।

প্রতিবছরের মতো করদাতাদের জন্য এবারের আয়কর মেলায় কর বিবরণী থেকে শুরু করে কর পরিশোধের জন্য ব্যাংক ও বুথ থাকবে। একই ছাদের নিচে মিলবে সব সেবা। করদাতাকে শুধু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে আনতে হবে। মেলায় নতুন করদাতারা ইলেকট্রনিক কর শনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন) নিতে পারবেন। এছাড়া, ই-পেমেন্টের জন্য পৃথক বুথ থাকবে। ‌অন্যান্য বা‌র যেসব সু‌যোগ-সু‌বিধার ছিল তার পাশাপা‌শি মেলায় মুক্তিযোদ্ধা, নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাসহ সেনাবাহিনীর সদস্যদের জন্য আলাদা বুথ থাক‌বে।

গত বছর আয়কর মেলায় ১৬ লাখ ৩৬ হাজার ২৬৬ জন নাগরিক করসেবা নেন। রিটার্ন জমা হয় ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৫৭৩টি। আয়কর আদায় হয় ২ হাজার ৪৬৮ কোটি ৯৪ লাখ ৪০ হাজার ৮৯৫ টাকা। নতুন নিবন্ধন নেন ৪৫ হাজার ৪৩৭ জন করদাতা।

কারো আয় বছরে আড়াই লাখ টাকার বেশি হলে রিটার্ন দেয়া বাধ্যতামূলক। নারীর ক্ষেত্রে এই সীমা ৩ লাখ। ব্যক্তিশ্রেণির করদাতার রিটার্ন জমার শেষ সময় ৩০ নভেম্বর। এ সময়ের মধ্যে রিটার্ন জমা না দিলে জরিমানার বিধান রয়েছে।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ