রাজধানীতে সবজির বাজারে আগুন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:৫৩

রাজধানীর বাজারগুলোতে হু হু করে বাড়ছে সবজির দাম। যেন কয়েকদিনের ব্যবধানে আগুন লেগেছে সবজির বাজারে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রায় সব সবজির দাম কেজিতে বেড়েছে সর্বোচ্চ ৪০ টাকা পর্যন্ত। প্রতিদিনই বাড়ছে সবজির দাম।

আড়তদাররা বলছেন, সরবরাহ সংকটের কারণেই বাড়ছে সবজির দাম। তবে এই যুক্তিতে মোটেই সন্তুষ্ট নয় ক্রেতারা।

এ দিকে ব্যবসায়ীরা আশঙ্কা করছেন, নতুন মৌসুমের সবজির আমদানি ছাড়া নিয়ন্ত্রণে আসবে না বাজার।

অনেকটা নিরুত্তাপ দেখা যাচ্ছে রাজধানীর কারওয়ানবাজারের পাইকারি সবজির আড়ৎ। সবচেয়ে বড় এ আড়তের ব্যাপারী আর আড়তদারদের কাছে স্তূপ করে রাখা কোনো সবজি নেই। আড়তদারদের দাবি, স্বাভাবিকের তুলনায় বাজারে সবজির সরবরাহ নেমেছে অর্ধেকে। ফলে বিক্রিও হচ্ছে একটু চড়া দামে।

আড়তগুলোর হিসাবে অনুযায়ী, মাঠ থেকে আড়ত, আড়ত থেকে খুচরা বাজার, এই ধাপগুলো পেরিয়ে ভিত্তিমূল্য থেকে প্রতিটি সবজির দাম খুব বেশি হলেও ৫-৭ টাকা বাড়ার কথা। কিন্তু পাইকারি বাজারের গণ্ডি পার হবার পরপরই শশা, টমেটো ও বেগুনসহ প্রায় সব ধরনের সবজির দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যাচ্ছে।

একটি খুচরা বাজার ঘুরে দেখা যায়, চার থেকে পাঁচ দিনের ব্যবধানে সব ধরনের সবজিই প্রতি কেজিতে দাম বেড়েছে ১৫ থেকে ৪০ টাকা পর্যন্ত। হঠাৎ করে  সবজির দাম বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছে নিম্ন থেকে মধ্যম আয়ের মানুষ। এছাড়া সবজির চড়া মূল্যে অসন্তুষ্ট সকল ক্রেতারা।

একজন সবজি বিক্রেতা জানান, গত সপ্তাহে পটল ২৫ টাকা দামে বিক্রি করেছি। এখন ৩৫ টাকা দরে বিক্রি করছি।

অন্যদিকে একজন ক্রেতা বলেন, সব ধরনের সবজির দাম বেশি, দোকানদার যেই দামে চায়, আমাদের বাধ্য হয়ে সেই দামেই কিনতে হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, নতুন মৌসুমের সবজি বাজারে আসতে এখনও প্রায় দুই থেকে তিন মাস সময় লেগে যাবে। ব্যবসায়ীরা মনে করছেন, এই সময়ের মধ্যে কিছুটা কমবেশি হতে পারে, তবে সবজির দাম সেই হারে নাগালের মধ্যে আসবে না।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ