ফেসবুক, গুগল ও ইউটিউবকে ভ্যাট এজেন্ট নিয়োগ করতে হবে

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৬ জুন ২০১৯, ২১:৫৪

বাংলাদেশ থেকে বিজ্ঞাপন পাওয়া বিদেশি টেলিভিশন, রেডিও এবং ইলেকট্রনিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান যেমন ফেসবুক, গুগল, ইউটিউব, মেসেঞ্জার, ইমো এবং হোয়াটসঅ্যাপকে মূল্য সংযোজন কর (মূসক/ভ্যাট) এজেন্ট নিয়োগ করতে হবে এবং ভ্যাট নিবন্ধন নিয়ে তাদের ভ্যাট দিতে হবে।

এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠি দিতে আজ বুধবার তথ্যমন্ত্রণালয় এবং বিটিআরসিকে চিঠি দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে সরকার ডিজিটাল সেবায় ১ জুলাই থেকে ভ্যাট এবং সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২ আরোপের প্রস্তাব করে। এই আইনে বিজ্ঞাপনের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রযোজ্য হবে।

আইন অনুযায়ী অনাবাসিক ব্যক্তি যারা রেডিও, টেলিভিশন ও অন্যান্য ইলেকট্রনিকের মাধ্যমে বিভিন্ন সেবা দিয়ে আসছেন তাদের দেশে ভ্যাট এজেন্ট নিয়োগ দিতে হবে এবং ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

স্যাটেলাইট চ্যানেল জি বাংলা, স্টার জলসা, জলসা মুভিজ এবং আরো কিছু বিদেশি চ্যানেল বাংলাদেশে বিজ্ঞাপন প্রচার করছে।

অন্যদিকে ফেসবুক, গুগল, ইউটিউব, মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ, ইয়াহু, অ্যামাজন এবং ইমোও বাংলাদেশি বিজ্ঞাপন পাচ্ছে।

মোবাইল ফোন অপারেটর, দ্রুত চলমান ভোগ্যপণ্য কোম্পানি, রাইড-শেয়ারিং এবং ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম এবং অন্যান্য ডিজিটাল সেবা প্রদানকারী কোম্পানিসহ বেশিরভাগ বহুজাতিক কোম্পানি বিজ্ঞাপনে বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করে।

হাইকোর্ট ২০১৮ সালের ১২ এপ্রিল গুগল, ফেসবুক, অ্যামাজন, ইয়াহু এবং ইউটিউবসহ বিভিন্ন ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের আয়ের ওপর যথাযথ কর, ভ্যাট এবং অন্যান্য চার্জ গ্রহণ করতে সরকারকে নির্দেশ দেয়।

এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে কী পরিমাণের অর্থ এই প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে লেনদেন করা হয়েছে তা নির্ধারণ করতে একটি বিশেষ কমিটি গঠন এবং কমিটির প্রতিবেদন আগামী ২৫ জুনের মধ্যে দাখিল করার নির্দেশ দেন আদালত।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ