বিজিএমইএর নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৪৭ | আপডেট : ০৬ এপ্রিল ২০১৯, ১১:০৪

তৈরি পোশাক উৎপাদন ও রপ্তানিকারক উদ্যোক্তাদের সংগঠন বিজিএমইএর পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। এ ভোটের মাধ্যমে আগামী ২ বছরের (২০১৯-২১) জন্য নেতা নির্বাচিত করবেন পোশাক মালিকরা।

আজ শনিবার রাজধানীর কাওরানবাজারে বিজিএমইএ ভবনে কোনো রকম বিরতি ছাড়া সকাল ৮ থেকে শুরু হওয়া এ ভোটগ্রহণ চলবে  বিকেল ৪টা পর্যন্ত।
নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে বিজিএমইএর নির্বাচন পরিচালনা বোর্ড।

এদিকে নানা জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দীর্ঘ প্রায় ৬ বছর পর বহুল কাঙ্ক্ষিত নির্বাচন হচ্ছে বিজিএমইএতে। ফলে এবার আর সমঝোতার নির্বাচন নয়, প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেই আসছে নতুন নেতৃত্ব।

বিজিএমইএর নির্বাচন পরিচালনা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার ১ হাজার ৯৫৬ জন। তার মধ্যে ঢাকার ১ হাজার ৫৯৭ জন। বাকি ৩৫৯ জন চট্টগ্রামের। পরিচালক পদে বিজয়ীরা পরবর্তী সময় সভাপতি, জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ও সহ-সভাপতি নির্বাচন করবেন।

দুই বছর মেয়াদী এই নির্বাচনে পরিচালনা পর্ষদের ৩৫টি পরিচালক পদে ৪৪ জন প্রার্থী অংশ নিয়েছেন। তবে এর মধ্যে চট্টগ্রাম অঞ্চলের ৯ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ২৬ পদে ভোটগ্রহণ হচ্ছে। এর মধ্যে প্রার্থী সম্মিলিত পরিষদের ও ফোরামের ২৬ জন, স্বাধীনতা পরিষদের ১৮ জন। সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরামের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মোহাম্মদী গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবানা হক। তিনি প্রয়াত ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র আনিসুল হকের সহধর্মিণী। অন্যদিকে স্বাধীনতা পরিষদের প্যানেল লিডার ডিজাইন অ্যান্ড সোর্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম।

২০১৫ সালে বিজিএমইএর নেতৃত্ব নির্বাচনের উদ্যোগ নেয়ার পর প্রতিদ্বন্দ্বী দুটি প্যানেল সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম সমঝোতার মাধ্যমে বর্তমান সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানকে সভাপতি করে একটি পরিচালনা পর্ষদ ঠিক করেছিল। এর পর থেকে আর নির্বাচন না হয়ে তিন ধাপে এই পরিচালনা পর্ষদের মেয়াদ বাড়িয়েছিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এর পর সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বাধীন বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল গত বছরের ২১ সেপ্টেম্বর। তখন নির্বাচন না হওয়ায় মেয়াদ আরও ৬ মাসের জন্য বাড়ানো হয়েছিল।

এর আগে, গত ৫ জানুয়ারি ২০১৯-২১ সময়ে নির্বাচনের জন্য পরিচালনায় বোর্ড গঠন করা হয়। গত নির্বাচনের মতো এবারও বিটিএমএর সাবেক সভাপতি জাহাঙ্গীর আলামিন নির্বাচনী বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন। অপর দুই সদস্য হচ্ছেন- এমসিসিআইর সভাপতি নিহাদ কবির ও চট্টগ্রামভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এএসএম নাইম।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food