মজুরি কাঠামো পর্যালোচনায় ত্রিপক্ষীয় কমিটি, কাজে ফেরার আহ্বান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ২১:০৬ | আপডেট : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ২১:৪০

পোশাক শিল্পের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি বিবেচনায় সদ্য বাস্তবায়নাধীন মজুরি কাঠামো পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।  এক মাসের মধ্যে মজুরি কাঠামো পর্যালোচনা করে নতুন সিদ্ধান্ত জানানোর কথা বলেছেন নতুন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।  এজন্য শ্রমিক, মালিক ও সরকারের প্রতিনিধি নিয়ে ত্রিপক্ষীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার নব নিযুক্ত বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান, মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের নিয়ে রাজধানীর দৈনিক বাংলায় শ্রম ভবনে জরুরি বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এতথ্য জানানো হয়।
 
টানা তিন দিন পোশাক কারখানায় শ্রমিকরা সরকারি মজুরি কাঠামো বাস্তবায়ন ও বেতন বৃদ্ধির দাবিতে বেশ কিছু এলাকায় রাস্তায় নেমে আসে। রাজধানীর উত্তরা ও সাভারে পোশাক শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে।

এমন পরিস্থিতি উত্তরণে বৈঠকে শেষে নতুন বাণিজ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, শ্রমিকদের কারো বেতন কমবে না। তিনি শ্রমিকদের কাজে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান। পাশাপাশি আন্দোলনকারীদের সতর্ক করে বলেন, সাইবার ক্রাইম শুরু হয়েছে। কোনো ধরনের বিশৃংখলা সহ্য করা হবে না। কেউ বিশৃংখলা সৃষ্টি করলে তা দমনে আইন শৃংখলা রক্ষাকারি বাহিনীকে কঠোর হতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি আরও বলেন, শ্রমিক ও মালিক পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। সিদ্ধান্ত হয়েছে কারো বেতন কমবে না। এজন্য ৫ জন শ্রমিক প্রতিনিধি, ৫ জন মালিক প্রতিনিধি এবং সরকারের পক্ষে বাণিজ্য ও শ্রম সচিবের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি ঘোষিত মজুরি সমন্বয়ের কাজ করবে। এক মাসের মধ্যে কমিটি রিপোর্ট দেবে। যদি দেখা যায় কারো বেতন কমে গেছে, সেটা অবশ্যই বাড়ানো হবে। এমাসের কম বেতন, আগামী মাসের বেতনের সঙ্গে বকেয়া হিসেবে পাবেন।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান বলেন, একবার বেতন বাড়লে তা কমে না। কোথাও কোনো সমস্যা থাকলে তা সমাধান করা হবে। তবে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বরদাশত করা হবে না। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিক বান্ধব। কোনো পক্ষকে প্রধানমন্ত্রী ঠকান না। এরপরও শ্রমিকরা নায্য বেতন না পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এবিএন/রাজ্জাক/জসিম/আর

এই বিভাগের আরো সংবাদ