ননা সমস্যায় জর্জরিত খোকসা ওসমানপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৩ আগস্ট ২০১৮, ১৯:২২

খোকসা (কুষ্টিয়া), ০৩ আগস্ট, এবিনিউজ : কুষ্টিয়ার খোকসার গড়াই নদী বিচ্ছিন্ন ওসমানপুর ইউপির ওসমানপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়েছে। শ্রেণি কক্ষ সংকট, জরাজির্ণ বিজ্ঞান ভবন, সীমানা প্রাচীর না থাকা সহ বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কারনে বিদ্যালয়টি তার অতীত ঐতিহ্য হাড়াতে বসেছে। দীর্ঘ দিন ধরে বিজ্ঞান শিক্ষকের পদ শুন্য থাকায় পাঠদান ব্যহত হচ্ছে।

১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলায় ওসমানপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি গড়াই পাড়ের মাধ্যামিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের শিক্ষার একমাত্র প্রতিষ্ঠান হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়ে। আধুনিক শিক্ষার পাশাপাশি বিজ্ঞান শিক্ষার কলবরে প্রসারের লক্ষে ১৯৮৮ সালে শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগ একটি বিজ্ঞান ভবন নির্মান করে। ৩৭ বছরের পুরাতন ভবনটি এখন  জরাজীর্ণ (ভগ্নদশা)।

বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণী শিক্ষার্থী ইমরান, রেজাউল ও মারুফ জানায়, বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান ভবনের ছাদ ও দেওয়ালের প্লাষ্টার উঠে গেছে। বৃষ্টি হলে ছাদ দিয়ে পানি পড়ে। ঝুকিপূর্ণ ভবনে আমরা ক্লাস করতে রাজি নই। ফলে আমাদের ক্লাস পরীক্ষা বিদ্যালয়ের অন্য কক্ষে নেওয়া হচ্ছে। এতে করে ব্যবহারিক ও বিজ্ঞান ক্লাস ঠিকমত হচ্ছে না। দীর্ঘ দিন ধরে বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান শিক্ষকের পদ শুন্য রয়েছে।

বিজ্ঞান শাখায় বর্তমানে ৯ম শ্রেণীতে ৫জন শিক্ষার্থী ও ১০ম শ্রেণীতে ১৬জন শিক্ষর্থী অধ্যয়ন করছে। বিদ্যালয়ের গনিত শিক্ষক এবং সহকারী প্রধান শিক্ষক বিজ্ঞান ক্লাসের কাজ আপাতত চালিয়ে নিচ্ছেন।

শিক্ষার্থীরা জানায়, বিদ্যালয়ের অধিকাংশ শ্রেণিকক্ষ দীর্ঘ দিনের পুরাতন। শ্রেণিকক্ষ গুলো নির্মানের পর তা সংস্কার না হওয়ায় এ সকল শ্রেণি কক্ষ গুলো শিক্ষার্থীদের বসার বা ক্লাস করার অনুপোযোগি হয়ে পরেছে। বিজ্ঞান ভবন পরিত্যক্ত হওয়ায় পাঠ দানের ক্ষেত্রে দেখা দিয়েছে শ্রেণি কক্ষ সংকট।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মাতিয়ার রহমান বলেন, ১ একর ৮৮শতাংশ জমির উপর ওসমানপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হলেও অদ্যাবধি বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর ও অন্যান্য অবকাঠামো তেমন গড়ে উঠেনি। ফলে বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত প্রায় ৪ শত শিক্ষার্থীর পাঠদান করতে নানাবিধ অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম যথাযথ ভাবে পরিচালনার জন্য তিনি শ্রেণি কক্ষ নির্মানের দাবী জানান।

 বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও ওসমানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আনিচুর রহমান (বাবলু) বলেন, অনেক দিনের পুরাতন বিজ্ঞান ভবনটি কোন সংস্কার না করায় বর্তমানে ভবনটি দিয়ে পানি পড়ে। বেশ কয়েকটি জায়গায় ছাদ ও ভীমের ইট-সিমেন্ট খুলে শিক্ষার্থীদের গায়ের উপর পড়ায় বর্তমানে এই ভবনটিতে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখা, বিদ্যালয়ের ভাল ফলাফল এবং যথাযথ বিজ্ঞান শিক্ষার জন্য তিনি বিদ্যালয়ে শ্রেনি কক্ষ নির্মানের জন্য সরকারের শিক্ষা বিভাগের নিকট দাবী জানান।

এবিএন/সুমন কুমার মন্ডল/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ