দশমিনায় দুর্বৃত্তের হামলায় মন্দিরের প্রতীমা ভাংচুর

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ এপ্রিল ২০২০, ১৩:২৯

দশমিনা উপজেলার বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ গ্রামে হরলাল ঠাকুরের বাড়ি ও গোড়াচাঁন গাইন বাড়ির পৃথক দুটি মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর ও চুরির ঘটনা ঘটেছে।

গতকাল বুধবার রাতে দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটায় বলে অভিযোগ।

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ গ্রামের হরলাল চক্রবর্তী পার্শ্ববর্তী বাড়ির পাশে গোলাম মস্তফা মাষ্টার ওরফে মস্তফা পঞ্চায়েতের মধ্যে ৩ একর ১৬ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মামলা মোকদ্দমা চলে আসছিল। বর্তমানে হাই কোর্টে মামলাটি চলমান।

হরলাল চক্রবর্তী জানান, রাত অনুমান ৩টা কি সাড়ে ৩টার দিকে জরুরী কাজে (প্রসাব করতে) ঘরের বাহির হলে ঘর থেকে দুজন লোক দৌড়ে বের হতে দেখি। আমার ডাকচিৎকারে ছেলেরা জেগে ওঠে আমার ঘরে গিয়ে ছেলেরা আলমারি ভাঙ্গা দেখে এবং জরুরী কাগজপত্র, নগদ ১৫/২০ হাজার টাকা ও সাড়ে ভরি স্বর্ণালংকার দেখতে পায় না। বাহিরে গিয়ে কালি মাতা ও নারায়ন মন্দির প্রতিমা ভাংচুর দেখতে পায়। সকালে বাড়ির উত্তর পাশের বিরোধীয় জমির সীমানার বেড়াও দেখতে পায় না।

অপরদিকে, ওই বাড়ির সামনে গোড়াচানঁ গাইন বাড়ির কালি মাতার প্রতিমাও ভাঙ্গা অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। হরলাল চক্রবর্তী ও তার বড় ছেলে হেমলাল চক্রবর্তী অভিযোগ, মস্তফা গংরাই এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ ব্যাপারে গোলাম মস্তফা মাষ্টার ওরফে মস্তফা পঞ্চায়েত জানান, এ ঘটনা ষড়যন্ত্রমূলক এবং মিথ্যা ও বানোয়াট। ওদের সাথে জমি নিয়ে ২০০৬সাল থেকে বিরোধ চলে আসছে। বর্তমানে হাই কোর্টে মামলা চলমান রয়েছে।

দশমিনা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম জালাল উদ্দিন জানান, ঘটনা শুনে আমিসহ স্থানীয় চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অনুসন্ধান চালিয়ে ব্যবস্থা নিব।

এবিএন/সাইদুর রহমান সাইদ/গালিব/জসিম

 

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ