নারায়ণগঞ্জে ঘরবন্দিদের ৯৯ লাখ ৯৯ হাজার টাকা অনুদান দিলেন শামিম ওসমান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০২ এপ্রিল ২০২০, ২০:৪৪

নারায়ণগঞ্জে ঘরবন্দি কর্মহীন মানুষের জন্য ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৯৯ লাখ ৯৯ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান।

তার নির্বাচনী আসনের ৭২টি ওয়ার্ড ছাড়াও নগরীর বিভিন্ন এলাকায় এই তহবিলের মাধ্যমে সহযোগীতা করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। করোনা ইস্যুতে নারায়ণগঞ্জে সরকারি বেসরকারি সকল হাসপাতালে অধিকাংশ চিকিৎসকদের অনুপস্থিতি ও সাধারণ রোগীদের ভোগান্তির কথা উল্লেখ করে দ্রুত এর সমাধান করতে জেলা সিভিল সার্জনের প্রতি তাগিদ দিয়েছেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। এসব হাসপাতালগুলোতে সাধারণ রোগের চিকিৎসা যাতে ব্যাহত না হয় এবং কোন রোগী যেন বিনা চিকিৎসায় ফিরে না যায় সে বিষয়টিও খেয়াল রাখতে সিভিল সার্জনকে সতর্ক থাকার আহবান জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (২রা এপ্রিল) বিকালে, নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় রাইফেল ক্লাবে করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে গণমাধ্যমের সঙ্গে প্রেস ব্রিফিংয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সেখানে উপস্থিত জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এ তাগিদ দেন। এসময় শামীম ওসমান খেটে খাওয়া অসহায় নিম্ন আয়ের মানুষদের মধ্যে নিজের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে প্রায় এক কোটি টাকা খাদ্য সহায়তা প্রদানের ঘোষণাসহ সিভিল সার্জনের কাছে একটি গার্মেন্ট কোম্পানির দেয়া ৪শ’ পিস পিপিই গাউন সেট প্রদান করেন।

এসময় শামীম ওসমান বলেন, নিম্ন আয়ের মানুষরা সরকারি-বেসরকারি সহযোগিতা নিতে আসলেও সমাজের মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেনি সবচেয়ে কষ্টে আছেন। কারণ তারা হাত পাততেও পারছেন না, কাউকে বলতেও পারছেন না। সকলকে বলবো আপনারা নিশ্চিন্তে থাকুন আমরা আছি আপনাদের পাশে। এর আগে আমি, আমার স্ত্রী ও সন্তানরা গোপনেই সহযোগিতা করেছি। এই অনুদানটি আমি গোপনেও করতে পারতাম কিন্তু সমাজের বিত্তবানরা যেন উদ্বুদ্ধ হন সেজন্যই জানিয়ে করছি। আমরা কে কোন দল করি সেটা বড় বিষয় না, এই মুহুর্তে আমরা একটি পরিবার, আমাদের বড় পরিচয় আমরা মানব জাতি। আমরা কম খাবো, কম পড়বো, কিন্তু সকলে মিলে ভালো থাকবো।

চিকিৎসা প্রসঙ্গে শামীম ওসমান বলেন, যে চিকিৎসকরাই এখন প্রধান, যাদেও কাছে আমরা সৃষ্টিকর্তার পরে আস্থা রাখছি, তারাই যদি হাত গুটিয়ে রাখেন তবে আমরা যাবো কার কাছে। হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও ঠান্ডা জ্বরসহ নানা উপসর্গ নিয়ে রোগীরা নগরীর দুইটি সরকারি হাসপাতালসহ বেসরকারি ক্লিনিক, ডায়গনষ্টিক সেন্টার ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের ব্যক্তিগত চেম্বারে গিয়েও চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না বলে তার কাছে অভিযোগ এসেছে। তিনি এসব প্রতিষ্ঠানের মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত সময়ের মধ্যে রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে সিভিল সার্জন ও জেলা প্রশাসককে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জোর তাগিদ দেন। অন্যথায় কোন গণবিষ্ফোরণ বা অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটলে তার দায়ভার সিভিল সার্জন ও প্রশাসনকেই নিতে হবে বলে তিনি হুঁশিয়ারি দেন।

এ ব্যাপারে আগামীকালের মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে লিখিতভাবে অবহিত করবেন বলেও শামীম ওসমান সাংবাদিকদের জানান। এর পাশাপাশি দেশের এই দুর্যোগপূর্ণ সময়ে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় বাড়ির মালিকদের মানবিক দিক বিবেচনা করে তাদের ভাড়াটে পরিবারদের এক মাসের বাড়ি ভাড়া মওকুফ করার আহবান জানান। একই সঙ্গে বাড়ির মালিকদের হোল্ডিং ট্যাক্স ও ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পৌরকর মওকুফ করতে সিটি করপোরেশনকে অনুরোধ করেন শামীম ওসমান।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ