কুড়িগ্রামে রিভলভারসহ ৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪:৪২

কুড়িগ্রামে হত্যা, জমি দখল, দলীয় নেতাকর্মীদের মারধর, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি ও ছিনতাইসহ এক ডজন মামলার আসামি শাহিনুর রহমান শাহিন ওরফে মার্ডার শাহিনকে ধরতে ত্রিমোহনীর মুক্তা রামের বাসায় অভিযান চালায় কুড়িগ্রাম সদর থানা পুলিশ। 

এ সময় পুলিশ তাল্লাশি করে ৬ রাউন্ড গুলিসহ একটি রিভালবার উদ্ধার করে। পুলিশের উপস্থিতি টেরপেয়ে শাহীন পালিয়ে যায়।

গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টা থেকে ৯টা পর্যন্ত পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। 

পুলিশ জানায়, সদর উপজেলার বেলগাছা মুক্তিরাম এলাকার আব্দুর রহিম ড্রাইভারের পুত্র শাহিন ওরফে মার্ডার শাহিন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর প্রভাবশালী এক নেতার ছত্রছায়ায় বেপরোয়া হয়ে ওঠে। গুম, খুন, চাঁদাবাজি, মাদক, টেন্ডারবাজি, ছিনতাই, জমিদখল ও নিজ দলের নেতাকর্মীদের মারধরসহ নানা অপরাধের সাথে জাড়িয়ে পড়ে।

শাহীনের বিরুদ্ধে ১২টি মামলা থাকলেও আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রকাশ্য বেপরোয়া ঘোরাফেরা করতো। অবশেষে তাকে গ্রেফতারে গতকাল মঙ্গলবার রাতে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহফুজার রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তার বাড়ী ঘিরে ফেলে। 

পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে শাহীন পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও তার বাড়ি তল্লাশি করে একটি রিভালভারসহ ৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে। দীর্ঘদিন পর পুলিশের এ অভিযানে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

উল্লেখ্য, জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতার অনুকূলে শাহিনুর রহমান ওরফে মার্ডার শাহিন সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক ছিলেন। 

দলীয় সূত্রে জানা যায়, নানা অপকর্মের সাথে জাড়িত থাকার প্রমাণ পওয়ায় পরে তাকে কেন্দ্র থেকে বহিস্কার করা হলেও দলীয় কর্মকান্ডে প্রভাবশালী ঐ নেতার সাথে অংশগ্রহণ করতেন। 

প্রভাবশালী ঐ নেতার ক্যাডার বাহীনি হিসেবে ইতিপূর্বে শহর থেকে অস্ত্রসন্ত্রে সাজ্জিত হয়ে রাজারহাট উপজেলা যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের সম্মেলন পন্ড করতে হামলা চালায়।

এবিএন/জাহিদ/গালিব/জসিম 
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ