বাউফলে রোগী সেজে নার্সকে কুপিয়ে জখম, আটক ১

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৯:৫৯

পটুয়াখালীর বাউফলে রোগী সেজে সুজাতা দত্ত নামের এক সিনিয়ার স্টাফ নার্সকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। 

এ ঘটনায় লিটন খান নামের এক দুর্বৃত্তকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। 

গতকার শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬টায় উপজেলার কালিশুরী শিবপুর স্লোব বাংলাদেশ ইনগ্রিড মেমোরিয়াল নামের একটি বেসরকারী হাসপাতালে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

প্রত্যক্ষ্যদর্শী ওই হাসপাতালের সার্ভিস স্টাফ ইউসুফ খান জানান, সকাল সাড়ে ৬টার দিকে তিন যুবক একটি মোটরসাইকেলযোগে হাসপাতালে এসে মূল ফটকের কড়া নাঁড়েন। তারা বাইক এ্যাকসিডেন্ট করেছেন বলে জানান। তখন তিনি ফটকের তালা খুলে দেন। নুরজাহান নামের এক বুয়া এসে তাদের জরুরী বিভাগে নিয়ে যান। 

তারা বাদল পিং মছুম আলী সাং কালিশুরি ভর্তি রেজিষ্টার খাতায় নাম লেখিয়ে আহত নার্সকে চিকিৎসা দিতে বলেন। এরপর নুরজাহান ফুল গাছে পানি দিতে চলে যান। এর অল্প সময় জরুরী বিভাগ থেকে ডাক চিৎকার শুনতে পেয়ে স্লোবের স্টাফ সহিদুল, ইউসুফ ও নসির উদ্দিন দৌঁড়ে গিয়ে দেখেন নার্স সুজাতা রানীর শরীর রক্তাক্ত ও অসংখ্য জখম। ওই সময় দুর্বৃত্ত দুই হাতে দুইটি ছুড়ি নিয়ে বেড় হয়ে যাচ্ছে। এ সময় তিনি ঝুঁকি নিয়ে ওই দুর্বৃত্তকে ঝাপটে ধরেন। 

এরপর হাসপাতালের কয়েকজন স্টাফ এসে তাকে সাহায্য করেন। ফাকে চিকিৎসা নিতে আসা বাদল ও অন্য এক সহযোগী মোটরসাইকেলযোগে ঘটনাস্থান থেকে ফালিয়ে যায়। আহত নার্স সুজিতাকে উন্নাত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। 

বাউফল থানার এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, আটকৃত দুর্বৃত্তের বাবার নাম শহিদুল ইসলাম খান। ভোলা জেলার উত্তর দিগন্দা ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামে তার বাড়ি।

এব্যাপারে ওসি তদন্ত মামুন বলেন, তিনজনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। লিটন নামে একজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

বাকি আসামিদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে ।

এবিএন/মো. দেলোয়ার হোসেন/গালিব/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ