সিরাজগঞ্জে এখনও উৎঘাটন হয়নি বকুল হত্যা মামলার রহস্য

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:২৩

সিরাজগঞ্জে চাঞ্চল্যকর আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি সদস্য বকুল হায়দার (৫২) হত্যা মামলার রহস্য প্রায় ৩ মাসেও উৎঘাটন হয়নি। তবে এ মামলায় সন্দেহভাজন মটর সাইকেলের চালক রফিকুল ইসলামসহ ৬ জন এখন জেল হাজতে রয়েছেন। এ ব্যাপারে নিহতের ছেলে মেহেদী হাসান সাগর বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী দিয়ে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ মামলাটি তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়। মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় ইন্সপেক্টর (ডিবি) হাসান বাছির। তিনি সাংবাদিকদের জানান, এ নির্মম হত্যাকান্ডে স্থানীয় রাজনীতিক দ্বন্ধ, পুর্ব শক্রতা, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পরকীয়া সর্ম্পকের বিষয় সামনে রেখে এই মামলার তদন্ত কাজ শুরু করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই এ মামলার ৮ জনকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ৬ জনকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

এছাড়াও আরও কয়েকজনকে ডেকে এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হলেও কোন তথ্য না পাওয়ায় তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। মামলার এখস কিছুটা অগ্রগতি হলেও তদন্তের স্বার্থে তা প্রকাশ করা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে ওসি (ডিবি) সঙ্গে তদন্ত করা হচ্ছে। এ নির্মম হত্যা মামলায় জড়িত প্রকৃত আসামীদের অল্প দিনের মধ্যেই গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, ২ নভেম্বর সন্ধ্যার পর মটর সাইকেলযোগে গ্রামের বাড়ী যাওয়ার পথে সিরাজগঞ্জ-কাজিপুর আঞ্চলিক সড়কের দত্তবাড়ি ব্রীজের কাছে গুলিতে নিহত হন বকুল হায়দার বকুল। তিনি সিরাজগঞ্জ সদর উপজলোর বাগবাটি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ছিলেন।


এবিএন/এস.এম তফিজ উদ্দিন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ