বদলগাছীতে অপ্রশিক্ষীত নার্স দ্বারা ডেলিভারী করানোর অভিযোগ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ১২:১৬

নওগাঁর বদলগাছীতে অপ্রশিক্ষীত নার্স দ্বারা ডেলিভারী করায় বাচ্চা ও মায়ের ক্ষতি। 

উপজেলা সদর হাসপাতলে পূর্বদিকে অবস্থিত জাহানারা ক্লিনিকে অপ্রশিক্ষীত সহকারী নার্স মোছা. রেশমী বেগম দ্বারা ডেলিভারী করানোর ব্যর্থ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

গত ৯ অক্টোবর বেলা ১১টায় উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের জাবারীপুর গ্রামের মো. আশরাফুল ইসলামের মেয়ে আশা বেগমকে ডেলিভারী করানোর জন্য জাহানারা ক্লিনিকে ভর্তি করে দেয়। 

উক্ত সহকারী নার্স স্বাভাবিকভাবে ডেলিভারী করানোর জন্য ১১টা থেকে সন্ধা ৭টা পর্যন্ত চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় রোগীর লোকজন তাদেরকে একাধিক অন্নে কোথাও সিজার করানোর কথা বল্লে কোন গুরুত্ব দেননি বলে জানান। দীর্ঘ ৬/৭ ঘন্টা ব্যর্থ চেষ্টা কালে বাচ্চার মাথা থেতলায়ে গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হলে নওগাঁ সদরে সূর্যমুখী ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয় বলে আশা বেগমের বাবা মো. আশরাফুলের ভাষ্যে জানা যায়। 

জাহানারা ক্লিনিকের মালিক মো. আনোয়ার হোসেন সেই দিন ডাক্তার না থাকায় সহকারী নার্স মোছা. রেশমী বেগম স্বাভাভিকভাবে ডেলিভারী করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে আশা বেগমকে নওগাঁ সদরে সূর্যমুখী ক্লিনিকে স্থানান্তরিত করা হয় বলে জানায়। 

আনোয়ার হোসেনকে তার ক্লিনিকের রেজিস্টেশন আছে কি না প্রশ্ন করলে সে বলেন ৩০/০৬/১৪ তারিখে রেজিস্টেশন করা হয়। যাহার নম্বর ৩৬৩১। তবে ৪ বছর যাবত নবায়ন করেননি বলেও সে জানান। 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার কানিজ ফারজানা বলেন আমার কছে ইতিপূবে জাহানার ক্লিনিকের এ রকম অভিযোগ রয়েছে সিভিল সার্জন স্যারের সঙ্গে কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

এ বিষয়ে নওগাঁ জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুমিনুল হক বলেন আমি সরেজমিনে জাহানারা ক্লিনিক তদন্ত করেছি তাদের বৈধতার কোন কাগজপত্রদী কিছুই নেই জরুরীভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এবিএন/হাফিজার রহমান/গালিব/জসিম 

এই বিভাগের আরো সংবাদ