তাড়াইলে আসামি ধরতে গিয়ে দুর্বৃত্তের হামলায় এসআই গুরুতর আহত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৪৮ | আপডেট : ১২ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৫১

কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে একটি ইজিবাইক চুরির মামলার আসামি ধরতে গিয়ে আসামিদের হামলায় তাড়াইল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজীবসহ তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। 

এ ঘটনায় ৯ জনকে আটক করেছে তাড়াইল থানা পুলিশ। 

গতকাল সোমবার রাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দশদ্রেুান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসআই রাজীব, এএসআই হেমন্ত ও এএসআই ফজলুল হক আহত হয়। এরমধ্যে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাড়াইল থানার এসআই রাজীবকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। 

এ ঘটনায় ইজি বাইক চুরির মামলার আসামি দশদ্রেুান গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে হিরন মিয়া ও তার মা রহিমা খাতুন, পার্শ্ববর্তী চাচা সোনা মিয়া এবং ভগ্নীপতি আওয়াল মিয়াসহ নয় জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে গত ১ অক্টোবর উপজেলার দশদ্রেুান গ্রামের আবু মিয়ার ছেলে আনোয়ার হোসেনকে একটি চুরি যাওয়া ইজিবাইকসহ আটক করে তাড়াইল থানা পুলিশ। এ সময় আনোয়ার হোসেন এ ঘটনায় একই গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে হিরন মিয়াসহ আরো কয়েকজন জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। 

গতকাল সোমবার রাত ১১.৩০ মিনিটের দিকে তাড়াইল থানার এসআই রাজীব, এসআই হেমন্তসহ একদল পুলিশ হিরন মিয়ার বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। এ সময় হিরন মিয়ার পরিবারের লোকজনের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এসআই রাজীব, এএসআই হেমন্ত ও এএসআই ফজলুল হক আহত হয়। 

পুলিশ রাতেই হিরন মিয়া, তার মা রহিমা খাতুন, পার্শ্ববর্তী বাড়ীর হিরন মিয়ার চাচা সোনা মিয়া ও বাড়ীতে বেড়াতে আসা উপজেলার বরুহা গ্রামের হিরন মিয়ার ভগ্নিপতি আউয়াল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে এবং হিরণ মিয়ার বাড়ী থেকে পাঁচটি গরু থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। 

এ দিকে আজ মঙ্গলবার সকালে উপজেলার সেকান্দরনগর গ্রামের বাসিন্দা হিরন মিয়ার খালা আছিয়া বেগম, খালাতো ভাই রাসেল মিয়া, রুবেল মিয়া ও খালাতো বোন ইয়াসমিন নাহার আটককৃতদের দেখতে থানায় আসলে পুলিশ তাদের আটক করে। 
এ ঘটনায় এসপি (প্রশাসন) নাজমুল হাসান ও এএসপি করিমগঞ্জ সার্কেল মাহবুবুল আলম সজীব ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। 

এ ব্যাপারে তাড়াইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুজিবুর রহমান জানান গতকাল সোমবার রাতে চুরি মামলার আসামি ধরতে এসআই রাজীবসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে দশদ্রেুান গ্রামে অভিযান চালিয়ে চুরি মামলার চারজন আসামিকে আটক করে। 

আটককৃত আসামিদের ছিনিয়ে নিতে আসামির স্বজনরা পুলিশের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে দায়ের কোপে এসআই রাজীব গুরুতর আহত হয়। 

এ ঘটনায় তাড়াইল থানায় এএসআই ফজলুল হক বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১০। 

আজ মঙ্গলবার বিকেলে আসামিদের কিশোরগঞ্জ জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। 

এবিএন/মো. সুমন মিয়া/গালিব/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ