ধামইরহাটে সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে ঘুষের টাকাসহ আটক ২

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৪:৪২

নওগাঁর ধামইরহাটে সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) অভিযান চালিয়ে ঘুষের ২৮ হাজার ৮৮৫ টাকাসহ অফিসের অফিস সহকারী ও নৈশ্য প্রহরীকে আটক করেছে। 

গতকাল বুধবার বিকেলে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। 

আটককৃতরা হলেন সাবরেজিষ্ট্রি অফিসের অফিস সহকারী ও উপজেলার চকযদু গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে রেজাউল ইসলাম  ও নৈশ্য প্রহরী ও চকপ্রসাদ গ্রামের নিয়াজ উদ্দিনের ছেলে এনামুল হক। 

জানা গেছে দুর্নীতি দমন কমিশনের হটলাইন ১০৬ এ ফোন করে ধামইরহাট উপজেলার সাবরেজিষ্ট্রি অফিসের অনিয়ম-দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অভিযোগ করেন এলাকাবাসী। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল বুধবার বিকেলে রাজশাহী জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে সহকারী পরিচালক আল-আমিনসহ সঙ্গীয় দুদক দল ধামইরহাট সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে অভিযান পরিচালনা করে অফিস বন্ধের সময় ঘুষ ও অনিয়মের ২৮ হাজার ৮শ’৮৫ টাকা গণনার করার সময় সাবরেজিষ্ট্রি অফিসের অফিস সহকারী রেজাউল ইসলাম ও নৈশ্য প্রহরী এনামুল হককে আটক করে দুদক। 

এ সময় উপস্থিত জনতা ও সাংবাদিকদের সামনে আটককৃত অফিস সহকারী রেজাউল ইসলাম এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন সাবরেজিষ্ট্রার তাহাজ্জোদ আলীর নির্দেশেই নিয়মের বাহিরে জমি রেজিষ্ট্রি খরচের বেশি টাকা নেওয়া হয়। আর সেই অতিরিক্ত টাকার ভাগও তিনি প্রতি দলিল থেকে নিয়ে থাকেন।

এ ব্যাপারে দুদকের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম জানান আজকে ধামইরহাট সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে ২১টি দলিল সম্পাদন হয় এবং তার সরকারি ফি হিসাব অনুযায়ী ৯ হাজার ৪৮৫ টাকা, কিন্তু সেখানে সরকারি ফি বাদে অতিরিক্ত ২৮ হাজার ৮৮৫ টাকা পাওয়া যায়, যা অফিস সহকারী ও নৈশ্য প্রহরী অনিয়ম করে গ্রহণ করেছেন বলে স্বীকার করেন। 

অপর প্রশ্নে তিনি আরো বলেন সাবরেজিস্ট্রারকেও আমরা নজরদারিতে রেখেছি, তদন্তে জড়িত পাওয়া গেলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে। 

এবিএন/ব্রেলভীর চৌধুরী/গালিব/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ