কাপাসিয়ায় পল্লী চিকিৎসককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০১৯, ১০:২১

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের তারাগঞ্জ বাজারের জনপ্রিয় পল্লী চিকিৎসক ও বিশিষ্ট কবিরাজ রাজু আহমেদের ওপর সশস্ত্র হামলা হয়েছে। 

মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক। 

কাপাসিয়া থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় গত ৮ অক্টোবর মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে ডা. রাজু আহমেদ তারাগঞ্জ বাজার থেকে মোটরসাইকেল করে বিলজোড়াইল গ্রামের বাড়ী আসছিলেন। বাড়ী যাওয়ার পথে বিলজোড়াইল  ব্রিজের উপর উঠার সময় ব্রিজের নীচে পূর্ব থেকে উৎপেতে বসে থাকা একই গ্রামের চিহ্নিত বখাটে সন্ত্রাসী ওমর হঠাৎ রাজুর উপর ঝাপিয়ে পড়ে এবং রামদা দিয়ে হাত, মুখ ও মাথায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ সময়  রাজুর আর্তচিৎকারে বিলের বড়শিয়াল ও কৃষকরা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসী ওমর দৌড়ে পালিয়ে যায়। এলাকার লোকজন  মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক বলে পরিবারের লোকজন জানান। ঘটনার পর রাতে ওমর কাপাসিয়া থানায় এসে নিজেই আত্মসমর্পণ করে। রাতে পুলিশ ওমরকে নিয়ে অভিযান চালিয়ে ব্রিজের পাশ থেকে হামলায় ব্যবহৃত ধারালো রামদা উদ্ধার করেছে। 

এ ব্যাপারে রাজু আহমেদের সুমন্ধী বাদী হয়ে ওমরকে আসামি করে কাপাসিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। থানা পুলিশ গতকাল ৯ অক্টোবর বুধবার ওমরকে গাজীপুর কোর্টে প্রেরণ করেন। 

ওমর বিলজোড়াইল গ্রামের আলমগীরের পুত্র। রাজু ও ওমরের বাড়ী পাশাপাশি। পারিবারিক দ্বন্দ্বের জের হিসেবে এ লোমহর্ষক ঘটনা ঘটতে পারে বলে অনেকের ধারণা। গ্রামের লোকজন জানায় ওমর রাজমিস্ত্রি কাজ করে এবং সে এলাকায় বখাটে নেশাখোর হিসেবে পরিচিত।

এবিএন/নুরুল আমীন সিকদার/গালিব/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ