সিরাজগঞ্জে সেই বিধবার বিয়ে : নবজাতক পেল বাবার পরিচয়

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:২৩

সিরাজগঞ্জের সেই বিধবা সন্তান প্রসবের ৩ দিন পর গ্রাম্য এক শালিস বৈঠকে দেবর হুমায়ুনের সাথে তার বিয়ে হয়েছে। ওই বিধবার নামে ১০ শতাংশ জমি ও ৫ লাখ টাকা কাবিনমূলে আনুষ্ঠানিকভাবে আজ বুধবার বিকেলে এই বিয়ে সম্পূর্ণ হয়। অবশেষে নবজাতক ওই কন্যা সন্তান বাবার পরিচয় পাওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে আনন্দের সৃষ্টি হয়েছে।

 স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম প্রামানিক ও ইউপি সদস্য আব্দুল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তারা বলেন, রায়গঞ্জ উপজেলার নওদাশালুয়া গ্রামের ওই বিধবা সোমবার ভোর রাতে একটি নবজাতক কন্যা সন্তান প্রসব করে। তার স্বামী রেজাউল ওরফে শুকুর আলী প্রায় ১৩ বছর আগে মারা যায়। পাশ্ববর্তী ব্রাক্ষনবাড়িয়া গ্রামের ফুফা শ্বশুর বিশার ছেলে হুমায়ুন (২৭) ওই বিধবার শ্বশুর বাড়ীসহ গ্রামের কয়েক বাড়ীতে ছেলে মেয়েদের প্রাইভেট পড়াতো।

 এ সুযোগে দেবর হুমায়ুন প্রায় ৭/৮ বছর ধরে আসা যাওয়া করতো ওই বিধবার বাড়ীতে। একপর্যায়ে তার সাথে গোপনে প্রেম ভালবাসা গড়ে তোলে। বিয়ে ও নানা প্রলোভন দিয়ে তাকে ধর্ষণ করে এবং অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলে দীর্ঘদিন ধরে। এতে সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে ওই বিধবার পক্ষ থেকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম প্রামানিকের কাছে বিচার প্রার্থী হয় তার পরিবারসহ গ্রামবাসী। এ পরিপ্রেক্ষিতে চেয়ারম্যান ওই বিধবার বাড়ীতেই বুধবার সকালে এক শালিস বৈঠকের আয়োজন করে।

চেয়ারম্যান আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শালিসে বিধবার ওই বর্ণনা প্রমাণিত হওয়ায় উল্লেখিত শালিস বৈঠকে রায় কার্যকর করা হয়। এ বৈঠকে উভয় পক্ষের মাতব্বর ও পাশ্ববর্তী ভদ্রঘাট ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক, নলকা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সিদ্দিকসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।


এবিএন/এস.এম তফিজ উদ্দিন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ