নরসিংদীর রায়পুরায় গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণ : গ্রেপ্তার ২

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:৩২

নরসিংদীর রায়পুরায় বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ডেকে নিয়ে এক গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে প্রেমিকসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নির্যাতিতা ওই নারী গোপালগঞ্জ জেলার বাসিন্দা ও গাজীপুরের একটি গার্মেন্টসের শ্রমিক। গতকাল রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে রায়পুরা উপজেলার গৌরিপুরা তালুককান্দি গ্রামের সূর্যের মোড় এলাকার একটি গ্যারেজে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো নির্যাতিতার প্রেমিক, রায়পুরা উপজেলার বেগমাবাদ হুগলাকান্দি গ্রামের ফিরোজ মিয়ার ছেলে শিপন মিয়া (২০) ও তার সহযোগী একই উপজেলার ঘাগটিয়া আলগী এলাকার হুছন উদ্দিনের ছেলে শামীম মিয়া (১৯)।

এ ঘটনায় অপর অভিযুক্ত একই উপজেলার বেগমাবাদ পল্টন এলাকার দুলাল মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া পলাতক রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত দুই আসামীকে আজ সোমবার বিকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে।  

পুলিশ জানায়, স্বামী পরিত্যক্তা ও এক সন্তানের জননী গাজীপুরের ওই গার্মেন্টস কর্মীর সাথে দেড় বছর আগে রায়পুরার শিপন মিয়ার ফোনে পরিচয় ও প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের সম্পর্কের জেরে শিপন তাকে বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে রায়পুরায় যাওয়ার প্রস্তাব দেয়।

শিপনের কথামত রবিবার রাতে গাজীপুরের বোর্ড বাজার হতে রায়পুরায় যান ওই নারী। রায়পুরার নীলকুঠি বাসস্ট্যান্ডে নামার পর শিপন ও তার দুই সহযোগী শামীম এবং রুবেল ওই নারীকে খাবার খাওয়ার কথা বলে একটি গ্যারেজে নিয়ে বসিয়ে রাখে। পরে সেখানে প্রেমিক শিপন একাধিকবার ও তার দুই সহযোগী পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এসময় চিৎকার করার চেষ্টা করলে তাকে মেরে ফেলার ভয় দেখানো হয়। রাতের এক পর্যায়ে ওই নারী গ্যারেজ থেকে পালিয়ে বের হয়ে আসেন। পরে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে থানায় জানানো হলে পুলিশ অভিযুক্ত দুই আসামীকে গ্রেফতার করে।

নির্যাতিতা ওই নারীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় নির্যাতিতা ওই নারী বাদী হয়ে তিনজনকে আসামী করে রায়পুরা থানায় মামলা করেছেন।


এবিএন/সুমন রায়/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ