ইন্দুরকানীতে পরকীয়ার জেরে ইউপি সদস্যকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:৪৬

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে ইউপি সদস্য জয়নাল মল্লিককে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেছে। 

গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার সেউতিবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত জয়নাল মল্লিক উপজেলার পত্তাশী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য। ঐ গ্রামের এক গৃহবধূর সাথে পরকীয়ার জেরে এ ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় অনেকে জানান। 

ঘটনার পর এলাকাবাসী জয়নাল মল্লিককে উদ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনার খবর পেয়ে রাত ১১টার দিকে ইন্দুরকানী থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। 

তবে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সেউতিবাড়িয়া গ্রামের কাজল বেগম ও তার স্বামী আকব্বর ওরফে খোকা সিকদারকে আটক করেছে পুলিশ।
 
এলাকাবাসী জানান ইউপি সদস্য জয়নাল মল্লিকের সাথে স্থানীয় কাজল বেগম নামে এক মহিলার পরকীয়ার সম্পর্ক চলছে দীর্ঘদিন ধরে। তাদের দুজনার কথোপকথনের পরকীয়ার একাধিক অডিও রেকর্ড ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। 

গতকাল শনিবার রাতে কাজল বেগমের সাথে দেখা করতে তার বাড়িতে গেলে জয়নালকে হাতেনাতে ধরে ফেলে মহিলার স্বামী খোকা সিকদার। আর এই পরকীয়ার ঘটনা নিয়েই এ হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানান স্থানীয়রা।

আহত জয়নাল মল্লিকের ভাই আব্দুস সালাম বলেন কোন পরকীয়ার সম্পর্ক নয়। শত্রুতা বশত পরিকল্পিতভাবে আমার ভাইকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করেছে খোকা সিকদার ও তার লোকজন।

ওসি মো. হাবিবুর রহমান স্থানীয়দের বরাদ দিয়ে জানান গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ইউপি সদস্য জয়নাল মল্লিককে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করার ঘটনা ঘটে। 

স্বজনরা তাকে আহত অবস্থায় পিরোজপুর সদর হাসপতালে নিয়ে ভর্তি করে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তবে এ ঘটনায় আহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুুতি চলছে বলে জানা গেছে। 

এবিএন/সিরাজুল ইসলাম টিটু/গালিব/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ