রামপালে প্রকাশ্যে ছিনতাইকালে মোটরসাইকেলসহ আটক ৩

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৯ আগস্ট ২০১৯, ১৩:২৯ | আপডেট : ১৯ আগস্ট ২০১৯, ১৬:৩৩

রামপালে প্রকাশ্য দিবালোকে ছিনতাইয়ের প্রক্কালে স্থানীয় জনতা ৩ ছিনতাইকারীকে হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। 

ওই সময় ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত নম্বরপ্লেটে প্রেস লেখাযুক্ত খুলনা মেট্রো -১১-৯৩০৫ একটি মোটরসাইকেল আটক করা হয় । 

আটককৃতরা হলো পবনতলা গ্রামের সালাম শেখ এর পুত্র শেখ মিঠুন, একই গ্রামের মোজাফ্ফর মল্লিক এর পুত্র রতন মল্লিক, সগুনা গ্রামের অহিদ শেখ এর পুত্র সেলিম শেখ।  

পুলিশ এবং স্থানীয়রা জানায় গতকাল রবিবার দুপুর ২টার সময় ফয়লাহাট আশা অফিসের কর্মী তারক চন্দ্র মন্ডল লোনের কালেকশন শেষে উপজেলার বাইনতলা ইউনিয়নের সগুনা গ্রামের গোলবুনিয়া ঘের এলাকা থেকে সাইকেলযোগে ফিরছিলো। এ সময় ৩ ছিনতাইকারী তার উপর লোহার রড ও অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায় এবং তার কাছে থাকা টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। 

এ সময় তার ডাক চিৎকারে শাহিনা বেগম নামে এক মহিলা এগিয়ে এসে ছিনতাইকারীদের প্রতিহত করার চেষ্টা করলে তারা তার ওপর উপুর্যপরী হামলা চালিয়ে তাকে গুরুতর জখম করে। পরে ওই এলাকায় খাল খনন কাজে থাকা একটি মাটি কাটা স্কোভেটার এর চালক ঘটনা দেখতে পেয়ে রাস্তা আটকে দেয় এবং এলাকাবাসী ছিনতাইকারীদের ধরে গণপিটুনি দেয়। এ সময় গুরুতর জখম চেতনাহীন তারক ও শাহিনাকে উদ্ধার করে খুমেক এ প্রেরণ করা হয়েছে। 

খবর পেয়ে ফয়লাহাট পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩ ছিনতাইকারীকে উদ্ধার করে আটক করে। 

উদ্ধারকৃত নম্বরপ্লেটে প্রেস লেখা সম্বলিত গাড়িটি ৭১ টেলিভিশনের রামপাল প্রতিনিধি পরিচয়দানকারী এক ব্যক্তির। ওই বিতর্কিত সাংবাদিক পরিচয়দারী ব্যক্তিও এই ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত থাকতে পারে বলে এলাকায় গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। 

ফয়লাহাট পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম জানান ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেলসহ ৩ আসামিকে আটক করা হয়েছে। তাদের রামপাল থানায় প্রেরণ করা হচ্ছে। 

রামপাল থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত) এমডি তুহিন হাওলাদার জানান আসামিদের থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এটি একটি সংঘবদ্ধ চক্র বলে মনে হচ্ছে। এদের সাথে আরও একাধিক ব্যক্তি জড়িত আছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হবে। 

ফয়লাহাট আশা ব্রাঞ্চ ম্যানেজার জানান আটককৃতদের বিরুদ্ধে অফিসিয়ালি মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।  
 

এবিএন/খৈয়াম হোসেন/গালিব/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ