সিলেটে হেরোইন পাচার মামলায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

সিলেট, ১১ জুন, এবিনিউজ : সিলেটে আট কেজি হেরোইন পাচারের মামলায় দুইজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে দণ্ডপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। আজ সোমবার দুপুরে সিলেট মহানগর দায়রা জজ মুজিবুর রহমান ভূঁইয়া এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার টিকরপাড়া-উত্তরভাগ গ্রামের তমছির আলীর ছেলে পারভেজ আলম সুজন (২৮) ও রাজ্জাকপুর গ্রামের মুহিব আলীর ছেলে হোসেন আহমদ মানিক (৫৫)। এর মধ্যে হোসেন আহমদ মানিক আদালত থেকে জামিন নেয়ার পর থেকে পলাতক রয়েছেন। অপর আসামি জেলহাজতে রয়েছেন।

 নবংঃ আদালত সূত্র জানায়, আসামিরা দেশি-বিদেশি মাদক পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। ২০১৪ সালের ২০ মে তাদের গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছিল। এরপর তাদের বিরুদ্ধে মাদক পাচারের মামলা দায়ের (নং-১৯৮৫/১৬) করা হয়।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের পিপি ও মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মফুর আলী এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ২০১৪ সালের ৯ মার্চ বৈদেশিক ডাকঘর শুল্ক ইউনিট দক্ষিণ সুরমা সিলেটের কার্যালয়ের ঠিকানায় পাকিস্তান থেকে ৪টি পার্সেল আসে।

পরে পার্সেলগুলোকে ডাক বিভাগের সুপারভাইজার খুললে তাতে ৮ কেজি ৪৫ গ্রাম হেরোইন পাওয়া যায়। পরে ২০১৪ সালের ১৩ মার্চ সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বাদী হয়ে ১৯৯০ সালের মাদকদ্রব্য আইনের ১৯ (১) ধারায় একটি নিয়মিত মামলা করেন।

পরে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) জমশেদ আলম ২০১৫ সালের ২ নভেম্বর আদালতে মামলার চার্জশিট দাখিল করেন।

এবিএন/মমিন/জসিম