বঙ্গতাজের জন্মদিনের কর্মসূচি উদ্বোধন করেন সোহেল তাজ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০১৯, ২১:৩২

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী শহীদ তাজউদ্দীন আহমদের ৯৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর জন্মস্থান গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলায় ১০দিনের কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মধ্যে রচনা, চিত্রাঙ্কন, উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভা ও আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে নানা কর্মসূচি পালিত হবে।

আজ মঙ্গলবার বিকালে কাপাসিয়া পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে আনন্দ র‌্যালী ও আলোচনা সভায় পায়রা উড়িয়ে ও কেক কেটে ওই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন তাজউদ্দীন আহমদের ছেলে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজীম আহমদ সোহেল তাজ।

সোহেল তাজ বলেন, এই কাপাসিয়ার পবিত্র মাটিতে জন্মগ্রহন করেছিলেন বঙ্গবন্ধুর গনিষ্ঠ সহচর তাজউদ্দীন আহমদ। তিনি বঙ্গবন্ধুর ডাকে সারা দিয়ে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার নের্তৃত্ব দিয়েছিলেন।

উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মাহবুব উদ্দিন আহম্মদ সেলিমের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেনের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভপতি মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ, জেলা আ’লীগের সহ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান অ্যাড: আমানত হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রধান, ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিন আকবর মুঞ্জু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রওশন আরা সরকার, সেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ দর্জী, ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল কাইয়ূম ভূইয়া, সাধারণ সম্পদক রাশেদুল হক সৈকত, কাপাসিয়া কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মামুন সহ ইউনিয়ন আ’লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্তচলবে এ কর্মসূচি। কাপাসিয়া শহরে আনন্দ র‌্যালি, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মধ্যে রচনা, চিত্রাঙ্কন, উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

১৯২৫ সালের ২৩ জুলাই কাপাসিয়ার দরদরিয়া গ্রামে মৌলভী মুহাম্মদ ইয়াসিন ও মেহেরুন্নেছা খানম দম্পতির ঘরে জন্ম নেন তাজউদ্দীন আহমদ। ১৯৬৪ সালে তিনি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ৬৬ সালে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর বন্দি অবস্থায় কারাগারের ভেতর স্বাধীনতা বিরোধী ঘাতকদের গুলিতে তিনি সহ জাতীয় চার নেতা শহীদ হন।

এবিএন/নুরুল আমীন শিকদার/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ