পণ্যের গুণগত মান ও পরিবেশ সুরক্ষা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে আরএফএল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ জুলাই ২০১৯, ২১:৪৩

হবিগঞ্জে কারখানা স্থাপনের পর থেকেই মানসম্পন্ন পণ্য উৎপাদন, স্থানীয় পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসংস্থান এবং আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি পরিবেশ সুরক্ষার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আসছে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ। এ কথা বলেছেন প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের পরিচালক (বিপণন) কামরুজ্জামান কামাল।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের পাঁচ বছর পূর্তি উপলক্ষে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, মানসম্পন্ন পণ্য উৎপাদনের পাশাপাশি পরিবেশের সুরক্ষার বিষয়টিকে আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকি। এ  ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে বর্তমানে ৪টি ইটিপি রয়েছে যার মাধ্যমে প্রায় দৈনিক ৬৬ লাখ লিটার তরল বর্জ্য পরিশোধন করা সম্ভব যেখানে প্রতিদিন প্রায় গড়ে ৪৫ লাখ লিটার তরল বর্জ্য উৎপাদিত হয়। লিকুইড বর্জ্য ইটিপি এর মাধ্যমে পরিশোধন করা হয় আর সলিড বর্জ্য দিয়ে জৈব সার তৈরী করা হয়।

কামরুজ্জামান কামাল আরো বলেন, ইতোমধ্যেই পরিবেশ অধিদপ্তরের প্রয়োজনীয় সকল ধরনের ছাড়পত্র পেয়েছে পার্কটি। তাছাড়া পরিবেশ অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট সরকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের কর্মকর্তারা নিয়মিত কারখানা পরিদর্শনের মাধ্যমে পরিবেশ সংশ্লিষ্ট বিষয়ের তদারকি করে থাকেন।  পরিবেশ সুরক্ষায় সংশ্লিষ্ট সকলকে সচেতন হবার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, উজান থেকে নেমে আসা দূষিত পানির প্রবাহ বন্ধ করা গেলে এ অঞ্চলের ঐতিহ্য সুতাং নদী দূষিণের হাত থেকে বাঁচবে।

হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের জেনারেল ম্যানেজার এইচ এম মঞ্জুরুল হক বলেন, এখানকার উৎপাদিত পণ্য বর্তমানে বিশ্বের ১৪১টি দেশে রপ্তানি হচ্ছে। গত পাঁচ বছরে ২২ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে। কারখানায় কর্মরত লোকবলের ৮০ ভাগই স্থানীয়।

তিনি জানান, কর্মসংস্থানের পাশাপাশি শায়েস্তাগঞ্জ এলাকায় উন্নত শিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারণে কাজ করছে গ্রুপটি। আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসহ কারখানা সংলগ্নে একটি স্কুল স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে এই স্কুলে প্রায় ৬’শ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। এছাড়া বেশ কিছু স্কুলে মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান, রাস্তাঘাট নির্মাণ, পয়ঃনিষ্কাশনের ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন কার্যক্রম চলছে যা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। মাত্র পাঁচ বছরে হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক এ অঞ্চলের মানুষের গর্বের বিষয়ে পরিণত হয়েছে।  

হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের জেনারেল ম্যানেজার আরএফএল-অ্যাডমিন ফজলে রাব্বি, সিনিয়র ম্যানেজার প্রাণ-অ্যাডমিন এহসানুল হাবিব ও প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের অ্যাসিসট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার (জনসংযোগ) জিয়াউল হকসহ কারখানার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকরা ইটিপিসহ  হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখেন।

দেশের শীর্ষ স্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ ২০১৪ সালে হবিগঞ্জের ওলিপুরে ২২০ একর এলাকা জুড়ে হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক গড়ে তোলে। কারখানায় বর্তমানে ফ্রুট ড্রিংক, বেভারেজ, ক্যান্ডি, লিকুইড গ্লুকোজ, বিস্কুট, কনফেকশনারি, ইলেকট্রিক ক্যাবলস, ফ্যান, মেলামাইন, বাইসাইকেল, এমএস ও জিআই পাইপ, টয়লেট্রিজসহ বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী উৎপাদিত হচ্ছে।

এবিএন/নুরুজ্জামান ভূইয়া/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ