নরসিংদীর পলাশ থেকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ১

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ মে ২০১৯, ২০:১৯

নরসিংদীর পলাশ থেকে ডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আজাহার খন্দকার (৫০) কে ১টি বিদেশী পিস্তল, ২ রাউন্ড গুলি ও বিপুল পরিমান দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। গতকাল রবিবার গভীর রাতে পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা গ্রামে র‌্যাবের একটি বিশেষ অভিযানে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আজাহার খন্দকার ওই গ্রামের মৃত. ওয়াজেদ খন্দকারের ছেলে। আজ সোমবার বিকেলে র‌্যাব-১১ সিপিএসসি’র কোম্পানী কমান্ডার ও উপপরিচালক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব স্বাক্ষরীত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্য জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক গতকাল রাবিবার গভীর রাতে নরসিংদী জেলার পলাশ থানাধীন ডাংগা ইউনিয়ন পরিষদের অন্তর্গত ডাংগা গ্রামস্থ এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। উক্ত অভিযানে পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা গ্রাম থেকে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী মো. আজাহার খন্দাকার (৫০) কে আটক করা হয়। এ সময় তার হেফাজত হতে ০১টি বিদেশী পিস্তল, ০২ রাউন্ড গুলিসহ ০১টি ভরা ম্যাগাজিন, ০১টি ধারালো কিরিস, ০২টি চাইনিজ কুড়াল, ০১ টি হাইসা ও ০৫টি রাম দা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তারকৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, আসামী মো. আজাহার খন্দকার নরসিংদী জেলার পলাশ থানার ডাংগা এলাকার বাসিন্দা। সে দীর্ঘদিন ধরে পলাশ থানার ডাংগা এলাকায় চাঁদাবাজি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখেছে। তার অত্যাচার ও নির্যাতনের ভয়ে সংক্ষুদ্ধ জনগন কথা বলার এবং এর প্রতিকার চাওয়ার সাহস পেতো না। প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে নিয়মিত চাঁদাবাজি করত।

এসকল সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ র‌্যাব-১১ এর একটি বিশেষ দল তার উপর গোয়েন্দা নজরদারী চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও বিভিন্ন অপরাধে তার বিরুদ্ধে নরসিংদীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানা যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানানো হয় এই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে।

 

এবিএন/সুমন রায়/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ