কলাপাড়ায় দশম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ : আটক ১

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ মে ২০১৯, ১৯:৩০

পটুয়াখালীর কলাপাড়ার টিয়াখালী ইউনিয়নের ইটবাড়িয়া গ্রামের দশম শ্রেণির ছাত্রী শ্যালিকাকে অপহরণ করে, কুয়াকাটা সমুদ্র রিসোর্ট আবাসিক হোটেলে গত ৮মে বিকেল থেকে ১২মে পর্যন্ত  আটকে রেখে একাধিকবার ধর্ষণ করে। তাকে এসিড নিক্ষেপও মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে আপন দুলাভাই সলেমান হাওলাদার (৩০)।

গতকাল বুধবার ওই ছাত্রী পালিয়ে বাসায় এসে তার বাবার মার সাথে সব ঘটনা খুলে বলেন। রাতে কলাপাড়া থানায় এসে দুলাভাই সলেমান হাওলাদার ও তার সহযোগী মো. মিলনকে আসামি করে ভিকটিমের ভাই মো. নাঈম ইসলাম, নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নের আজিমপুর গ্রামের বাসিন্দা সলেমান হাওলাদার উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নের আজিমপুর গ্রামের বাসিন্দা সলেমান হাওলাদার করেন। প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে বলে দাবি করেন। পুলিশ এখন পযর্ন্ত প্রাধান আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে সহযোগী মিলনকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতে সোপর্দ করেছে।

মামলার বিবরনে জানা গেছে, গত ৮ মে ছাত্রী টিয়াখালী ইউনিয়নের ইটবাড়িয়া তার নিজ বাসা থেকে শহরে আসছিল। বিকেল তিনটার সময় আপন দুলাভাই জোর করে তাকে হোন্ডায় তুলে নিয়ে যায় ।তখন তার সাথে সহযোগী ছিল কয়েক জন। অপহরণ করে নিয়ে কুয়াকাটা সমুদ্র রিসোর্ট আবাসিক হোটেলে আটকে রেখে ৮মে থেকে ১২ মে পযর্ন্ত একাধিকবার ধর্ষন করেন।

এর আগে বিভিন্ন সময় তার আপন দুলাভাই স্কুলে আসার পথে তাকে উত্যক্ত করতো। উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নের আজিমপুর গ্রামের বাসিন্দা সলেমান হাওলাদার । কলাপাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, মূল আসামি সলেমানকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


এবিএন/তুষার কান্তি হালদার/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food