দুর্গাপুরে হাজংদের দেউলী উৎসব শুরু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৫ মে ২০১৯, ১৭:২৭

সংস্কৃতি হউক মানবীয় পথচলার অঙ্গীকার, এই প্রতিপাদ্যে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর হাজং সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণে নেত্রকোনার দুর্গাপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে বার্ষিক হাজং সমাবেশ ও দেউলী উৎসব। আজ রবিবার দুপুরে দু‘দিন ব্যাপী এ সমাবেশ উদ্বোধন করেন সাবেক সংসদ সদস্য কাব্যশ্রী কাজী রোজী।


নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলামের সভাপতিত্বে গীতিকার ও কবি সুজন হাজং এর সঞ্চালনায় উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল এমপি।

 বিশেষ অতিথি হিসেবে আলোচনা করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. অসিত সরকার সজল, জেলা আওয়ামী লীগ‘র সদস্য ও দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জান্নাতুল ফেরদৌস ঝুমা তালুকদার, এএসপি দুর্গাপুর সার্কেল মো. সাইদুর রহমান, ইউএনও মোহাম্মদ তোফায়েল আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিন আল আজাদ, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ, একাডেমীর পরিচালক শরদিন্দু সরকার, বিশিষ্ট শিশু সাহিত্যিক কবি আসলাম সানী, বিশিষ্টি গবেষক কবি ড. মুজিদ মাহমুদ, বিশিষ্ট চলচিত্র নির্মাতা ড. মাসুদ পথিক, কবি লুৎফর চৌধুরী, সালাউদ্দিন মাহমুদ, আদিবাসী গবেষক মনিন্দ্র নাথ মারাক, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি আব্দুল হান্নান, হাজং নেতা পল্টন হাজং, স্বপ্না হাজং প্রমুখ।

প্রধান অতিথি বলেন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বিভিন্ন সমস্যা ও তাদের জীবনমান উন্নয়ন, ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় বর্তমান সরকার অধিকতর গুরুত্ব দেয়ার কারনে আদিবাসীদের জ্ঞান ও মেধাকে আরো বিকশিত করার জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালচারাল একাডেমী প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। শুধু তাই নয় দেশের প্রায় প্রতিটি উপজেলায় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে লালন করার জন্য শিল্পকলা একাডেমি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

 অত্র এলাকার সন্তান হিসেবে নেত্রকোনার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রক্ষায় সরকারের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহায়তা করতে আমি সর্বদা প্রস্তত থাকবো। উপস্থিত সকলকে সরকারের পাশাপাশি নেত্রকোনার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। আলোচনা শেষে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত হাজং সাংস্কৃতিক দল তাদের কৃষ্টি তুলে ধরে সংগীত ও নৃত্য পরিবেশনের পাশাপাশি ঐতিহাসিক মহিষা সুরবধ পালা পরিবেশন করেন।


এবিএন/তোবারক হোসেন খোকন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food